Ultimate magazine theme for WordPress.

ঈশ্বরদীতে ভোটে হেরে ব্যালট ছিনতাই, গুলিবিদ্ধসহ আহত ৮

0

পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার দাশুড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সদস্য পদে হেরে পরাজিত প্রার্থীর সমর্থকরা ভোটকেন্দ্রে হামলা চালিয়ে ব্যালট পেপার ছিনতাই করেছে। এ সময় পুলিশ ফাঁকা গুলি ছুড়লে একজন গুলিবিদ্ধসহ অন্তত ৮ জন আহত হয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

রোববার (২৮ নভেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে দাশুড়িয়া ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড সুলতানপুর এলাকার ভোটকেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন- পরাজিত প্রার্থী মুনসুরের সমর্থক গুলিবিদ্ধ রতন হোসেন (৩০) ও সবুজ মিয়া (২৮)। বাকিদের নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি।

থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ঈশ্বরদীর দাশুড়িয়া ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মো. বকুল সরদার নির্বাচিত হওয়ায় চেয়ারম্যান পদে ভোটগ্রহণ না হয়ে মেম্বর প্রার্থীদের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সারাদিন উৎসবমূখর পরিবেশে শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। তবে সন্ধ্যার পর ভোট গণনা শেষে বিজয়ী প্রার্থীর নাম ঘোষণা হলে সঙ্গে সঙ্গে পরাজিত প্রার্থী ও তার সমর্থকরা পুলিশের গাড়ি বহরে হামলা চালিয়ে ব্যালট ছিনতাই করে নিয়ে যায়। এ সময় পুলিশ নিজেদের নিরাপত্তার জন্য ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা গেছে, দাশুড়িয়া ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডে মেম্বর পদে দুইজন লড়াই করে। আলাউদ্দিন হোসেন ঘুড়ি মার্কা নিয়ে পেয়েছেন ৯২০ ভোট ও তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মুনছুর আলী পেয়েছেন ৮১৩ ভোট। ১০৭ ভোটে পরাজিত হন মুনছুর আলী।

বিজয়ী প্রার্থী আলাউদ্দিন হোসেন বলেন, ভোটে হেরে কেন্দ্রে হামলা চালিয়ে ব্যালট পেপার ছিনতাই করেছে তারা। এটা ন্যাক্কারজনক ঘটনা। তার দৃষ্ঠান্তমূলক  শাস্তি চাই।

পরাজিত মেম্বর প্রার্থী মনসুর হোসেন বলেন, ভোটে ব্যাপক কারচুপি হয়েছে। বিজয়ী হলেও আমাকে ষড়যন্ত্র করে হারানো হয়েছে। পুনরায় ভোটের দাবি করেন তিনি। আমার সমর্থকরা হামলা করেনি। আমাকে ফাঁসানো হচ্ছে।

ঈশ্বরদী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসাদুজ্জামান আসাদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এখানে প্রিসাইডিং অফিসার বিজয়ী প্রার্থীর নাম ঘোষণা করে গাড়িতে ওঠার সময় পরাজিত প্রার্থী মুনসুর ও তার সমর্থকরা পুলিশের গাড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যালট পেপার ছিনতাই করে। এ সময় পুলিশ লাটিচার্জ ও ফাঁকা গুলি করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ ঘটনায় একজন গুলিবিদ্ধসহ ৮ জন আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ঈশ্বরদী উপজেলা নির্বাচন ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আশরাফুল হক জানান, ঈশ্বরদীর ৭ ইউনিয়নে শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে সন্ধ্যায় ভোট গণনা শেষে পরাজিত মেম্বর প্রার্থী ও তার সমর্থকরা হামলা চালিয়ে ব্যালট পেপার ছিনতাই করে নিয়ে গেছে। তবে রেজাল্টশিটের ভোটের সংখ্যা উঠানো থাকায় কোনো সমস্যা হবে না।

 

ঢাকা পোস্ট

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »