Ultimate magazine theme for WordPress.

পাসপোর্ট দালালদের ‘বৈধতা’ দেওয়া হচ্ছে

0

সরকারের কাছে দালাল দিয়ে পাসপোর্ট করানোর অনুমতি চেয়েছে বাংলাদেশ ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর। দালালকে ‘এজেন্ট’ স্বীকৃতি দিয়ে তাদের দিয়ে পাসপোর্ট করানোর পরিকল্পনা গ্রহণ করে এই চিঠি দিয়েছে সংস্থাটি। তাদের ভাষ্য, পাসপোর্ট অধিদপ্তরের অতিরিক্ত চাপ কমাতে এই পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে তারা।

সম্প্রতি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগে এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের অনুমতি চেয়ে একটি চিঠি দিয়েছে ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর।

সরকারকে চিঠিতে সংস্থাটি জানায়, অনেকে পাসপোর্টের আবেদনের নিয়ম জানে না। ঠিকমতো নাম ঠিকানা লিখতে পারে না। ত্রুটিপূর্ণ আবেদনপত্র নিয়ে এসে হয়রানির শিকার হয়। আবার দালালরাও এ সুযোগে তাদের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়। তাই এ হয়রানি থেকে মুক্তির জন্য দালালদের মধ্য থেকে যোগ্যদের এজেন্ট হিসেবে নিয়োগ করতে চায় অধিদপ্তর। প্রাথমিকভাবে মন্ত্রণালয়ের অনুমতি পেলে এজেন্টদের যোগ্যতা নির্ধারণসহ একটি বিধিমালা করা হবে।

ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর স্থানীয় দালাল ছাড়াও ট্রাভেল এজেন্সিকে পাসপোর্টের এজেন্ট হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার পরিকল্পনার কথাও জানিয়েছে।

চিঠিতে আরও জানানো হয়, এজেন্টের মাধ্যমে পাসপোর্টের ফরম পূরণ ও আবেদন করতে সরকারি ফি’র বাইরে গ্রাহকের অতিরিক্ত টাকা খরচ হতে পারে। খরচটি চূড়ান্ত না হলেও সেটি অবশ্যই সরকারি ফি’র ১০ শতাংশের কম হবে।

সম্প্রতি দালালদের এজেন্ট হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার প্রস্তাব দিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে একটি চিঠি ইমিগ্রেশন অ্যান্ড পাসপোর্ট অধিদপ্তর দিয়েছে বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা বিভাগের সচিব মোহাম্মদ মোকাব্বির হোসেন।

বিবিসি বাংলা তাদের প্রতিবেদনে বলেছে, সচিব বলেছেন- পাসপোর্ট আবেদনকারী অনেকেই নিজের ফর্ম নিজে পূরণ করতে পারেন না, সাহায্য লাগে। অনেকে অনলাইনে ফর্ম পূরণ করতেও পারেন না। তখন দালালদের প্রয়োজন হয় তাদের। কিন্তু এখন পর্যন্ত লিগ্যালি কেউ কাজটা করে না। এখন যাতে তারা আইনসিদ্ধভাবে কাজটি করতে পারে সেজন্য বৈধতা দেওয়ার এ প্রক্রিয়া নেওয়া হয়েছে।

জমিজমা ও সম্পত্তির দলিল লেখকদের উদাহরণ দিয়ে সচিব আরও বলেন, পাসপোর্টের ক্ষেত্রেও যেহেতু বড় অংশের মানুষের এই সাহায্য প্রয়োজন হচ্ছে, সে কারণে সরকার এই উদ্যোগ নিয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »