Ultimate magazine theme for WordPress.

অ্যামাজন জঙ্গলে মিলল বিলুপ্তপ্রায় ‘জোম্বি ব্যাঙ’

0

অ্যামাজন জঙ্গলে নতুন এক ব্যাঙের সন্ধান পেয়েছেন জার্মান গবেষক রাফায়েল আর্নস্ট। দীর্ঘদিন ব্যাঙ ও সাপের মতো উভচর ও সরীসৃপ প্রাণীদের নিয়ে কাজ করছেন তিনি।
সম্প্রতি রাফায়েল আর্নস্ট এবং তাঁর দল অ্যামাজনের জঙ্গলে খুঁজে পেয়েছেন ‘জোম্বি ব্যাঙ’। সংবাদমাধ্যম ডয়েচে ভেলেকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন নতুন প্রজাতির ব্যাঙের সন্ধান পাওয়ার গল্প।
এই ব্যাঙের গায়ের রং গাঢ় কমলা। তার ওপর ছোট ছোট বিন্দু (স্পট) আছে। রাতের দিকে এ ধরনের ব্যাঙ কর্মচঞ্চল হয়ে ওঠে। মাটির তলায় গর্ত করে থাকে এই প্রজাতির ব্যাঙ।
রাফায়েল জানিয়েছেন, সন্ধ্যার পর জঙ্গলে ঢুকে তাঁরা বৃষ্টির অপেক্ষা করতেন। বৃষ্টি শুরু হলেই খালি হাতে তাঁরা গর্ত বানানোর কাজ চালাতেন। গোটা শরীর ভরে যেত মাটিতে। গর্ত খোঁড়ার আওয়াজের সঙ্গে তাঁরা অপেক্ষা করতেন কখন ব্যাঙের ডাক শোনা যাবে। আওয়াজ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে শব্দ অনুসরণ করে তাঁরা ব্যাঙের পেছনে ছুটতেন। আগেই তাঁরা নতুন প্রজাতির ব্যাঙের আওয়াজ পেয়েছিলেন। কিন্তু চোখে দেখেননি। গর্ত করতে শুরু করার পরেই প্রথম তাঁরা জোম্বি ব্যাঙের সন্ধান পান।

রাফায়েল জানান, নামে ‘জোম্বি’ থাকলেও আসলে নতুন প্রজাতির এই ব্যাঙ আচরণে ভয়ংকর নয়। তা সত্ত্বেও তাঁরা এই নাম দিয়েছেন, কারণ মাটিতে গর্ত করার সময় গবেষকদের জোম্বির মতো দেখতে লেগেছে। স্বভাবে নতুন প্রজাতির এই ব্যাঙ অত্যন্ত ‘ভালো’। তবে, খুব সতর্ক না হলে তাকে দেখতে পাওয়া মুশকিল। দ্রুত এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় চলে যেতে পারে ব্যাঙটি। আর গায়ের রঙের জন্য মাটির সঙ্গে মিশে যায়।

পিএইচডি গবেষণার জন্য হাতে-কলমে কাজ করতে প্রায় দুই বছর দক্ষিণ আমেরিকার অ্যামাজন জঙ্গলে থেকে নতুন এই ব্যাঙ খুঁজে পেয়েছেন রাফায়েল। আরও দুটি নতুন প্রজাতির ব্যাঙ আগেই আবিষ্কার করেছিলেন তিনি। তবে, সাম্প্রতিক আবিষ্কারটি গুরুত্বপূর্ণ। জার্মান এই গবেষক জানান, অ্যামাজনের জঙ্গল দ্রুত নষ্ট হয়ে যাচ্ছে। জঙ্গল কেটে ফেলা হচ্ছে। নতুন প্রজাতির ব্যাঙটি কার্যত বিলুপ্তির পথে। দ্রুত ব্যবস্থা না নিলে একে আর বাঁচানো যাবে না।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »