Ultimate magazine theme for WordPress.

স্কুলছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষণ, অভিযুক্ত গ্রেফতার

0

প্রেমে সাড়া না পেয়ে কুমিল্লা জেলার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলায় এক স্কুলছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় মামলা হওয়ার পর অভিযান চালিয়ে পুলিশ মামলার প্রধান আসামি মো. ইস্রাফিলকে (২০) গ্রেফতার করেছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন যাবত বখাটে ইস্রাফিল মিয়া একই এলাকার স্থানীয় একটি স্কুলের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রীকে প্রেম নিবেদন করে আসছিলেন। কিন্তু ওই স্কুলছাত্রী বখাটের প্রেমে সাড়া দেয়নি। এরপরও ইস্রাফিল ওই স্কুলছাত্রীকে বিভিন্নভাবে উত্যক্ত করতে থাকেন।

একপর্যায়ে স্কুলছাত্রীর বাবা এ বিষয়ে ইস্রাফিলের বাবার কাছে বিচার দেন। ঘটনার পর ইস্রাফিল স্কুলছাত্রীর উপর ক্ষুব্ধ হন। গত ৩০ জুলাই স্কুলছাত্রী নিখোঁজ হয়। তার বাবা বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজির পর ওইদিন সন্ধ্যায় থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন।

একপর্যায়ে নিখোঁজ স্কুলছাত্রীর বাবা জানতে পারেন, ইস্রাফিল ও তার দুই সহযোগী হাবিবুর রহমান ও আল মামুন জোরপূর্বক তার মেয়েকে রাস্তা থেকে তুলে নিয়ে গাজীপুর জেলার কাশিমপুরের লতিফপুরে নিয়ে গেছে।

এরপর পুলিশ গত ৫ আগস্ট কাশিপুর উপজেলার লতিফপুর এলাকার সাইফুল ইসলামের ভাড়াটিয়া বাসা থেকে স্কুল অপহরণের শিকার স্কুলছাত্রীকে উদ্ধার করে। পুলিশ ও বাবাকে দেখে ওই ছাত্রী কান্নাকাটি শুরু করে।

নিখোঁজ স্কুলছাত্রী সূত্রে জানা যায়, গত ৩০ জুলাই ইস্রাফিল ও তার দুই সহযোগী শশীদল ইউনিয়নের সেনের বাজার এমরান ব্রিক ফিল্ডের সামনে থেকে সন্ধ্যায় জোরপূর্বক প্রাইভেটকারে তাকে গাজীপুরের লতিফপুর সাইফুল ইসলামের ভাড়াটিয়া বাসায় নিয়ে যায়। ওইদিন রাতে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করা হয়। এছাড়া বিভিন্ন স্থানে আটক রেখে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করে ইস্রাফিল।

এ ঘটনায় স্কুলছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার ইস্রাফিল ও তার দুই সহযোগীর বিরুদ্ধে  ব্রাহ্মণপাড়া থানায় মামলা দায়ের করেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »