Ultimate magazine theme for WordPress.

ফুটবল জাদুকর মেসির জন্মদিন আজ

0

ক্রাইম টিভি বাংলা অনলাইন ডেস্ক…নিজের বাঁ পায়ের জাদুতে তিনি বশ করেছেন গোটা ফুটবল বিশ্বকে। ফুটবল ক্যারিয়ারে যার প্রাপ্তি ও সাফল্যের শেষ নেই। সেই ফুটবলের জাদুকর লিওনেল মেসির আজ জন্মদিন। ১৯৮৭ সালের ২৪ জুন তারিখে রোজারিও শহরে জন্মগ্রহণ করেন তিনি। সেই হিসেবে ছোটখাটো গড়নের বড় জাদুকরের আজ ৩৪তম জন্মদিন।
মেসির অপ্রাপ্তি বলতে শুধু নিজ দেশ আর্জেন্টিনার হয়ে বড় কোন শিরোপা জিততে না পারা। যদিও এর খুব কাছাকাছি গিয়েছিলেন মেসি। ২০১৪ সালের ফুটবল বিশ্বকাপ, ২০১৫ ও ২০১৬ সালের কোপা আমেরিকায় দলকে তুলেছিলেন ফাইনালে। কিন্তু তিন ফাইনালের একটিতেও শেষ হাসি হাসতে পারেননি মেসি। তিনবারই আটকা পড়েছেন শেষ বাধায়। তবে ব্যক্তি খেলোয়াড় হিসেবে মেসি ছিলেন টুর্নামেন্টের সেরা।
মেসির ক্যারিয়ারের পুরোটাই বার্সার ছায়াতলে। ১৩ বছর বয়সে আর্জেন্টিনার নিউওয়েলস ওল্ড বয়েস ক্লাব থেকে বিনা ট্রান্সফার ফিতে ন্যু ক্যাম্পে যোগ দেন মেসি। ২০০২ সাল থেকে বার্সা যুবদলের হয়ে ক্যারিয়ার শুরু করেন।
২০০৩ সালে যোগ দেন বার্সার অনূর্ধ্ব-১৬ দলে। এরপর বার্সা অনূর্ধ্ব-১৯, বার্সা সি দল এবং বার্সা বি দলের হয়ে খেলা সম্পন্ন করে ২০০৫ সালে ১ জুলাই থেকে বার্সার মূল দলে ঠাই হয় তার।
এরপর থেকেই বিশ্বফুটবলের অন্যতম সেরা তারকায় পরিণত হন মেসি। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে মেসি বার্সেলনার হয়ে ৭৩১ ম্যাচ খেলে ৬৩৪টি গোল করেছেন।
তার মধ্যে লা লিগায় ৪৮৫ ম্যাচে ৪৪৪ গোল, চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ১৪৩ ম্যাচে ১১৫ গোল, কোপা দেল’রে তে ৭৫ ম্যাচে ৫৩ গোল, সুপার কোপায় ১৯ ম্যাচে ১৪ গোল, ক্লাব ওয়ার্ল্ড কাপে ৫ ম্যাচে ৫ গোল ও উয়েফা সুপার কাপে ৪ ম্যাচে ৩ গোল রয়েছে তার।
মেসির এসিস্টে গোলের পরিসংখ্যান ঈর্ষণীয়। তার বানিয়ে দেয়া বলে লা লিগায় ৪৮৫ ম্যাচে ২০১ গোল, চ্যাম্পিয়নস লিগে ১৪৩ ম্যাচে ৩৯, কোপা দেল’রে তে ৭৫ ম্যাচে ৩৬, সুপার কোপায় ১৯ ম্যাচে ৫, ক্লাব ওয়ার্ল্ড কাপে ৫ ম্যাচে ১ ও উয়েফা সুপার কাপে ৪ ম্যাচে ৩ গোল হয়েছে।
মেসি তার পুরো ক্যারিয়ারে বার্সার হয়ে ৫৯ হাজার ৩১৫ মিনিট মাঠে ছিলেন। তার মধ্যে সর্বোচ্চ ৩৯ হাজার ১২০ মিনিট খেলেছে লা লিগায়। সর্বনিম্ন ৪২০ মিনিট খেলেছেন উয়েফা সুপার কাপে। পুরো ক্যারিয়ারে হলুদ কার্ড দেখেছেন ৭৫টি। লাল কার্ড একটিও দেখেননি।
বর্তমান সময়ের এ সেরা তারকা ৬ বার ফিফার বর্ষসেরে খেলোয়াড় হয়েছেন। ব্যালন ডি অর জিতেছেন ৬ বার। বার্সার হয়ে চারবার জিতেছেন চ্যাম্পিয়ন্স লিগ। ১০ বার স্প্যানিশ চ্যাম্পিয়নের ট্রফি ও ৬ বার স্প্যানিশ কাপ জেতেন এ মহাতারকা।
মেসি ৩৫ বছর বয়সে খেলবেন কাতার ২০২২ বিশ্বকাপ। আর সেই হিসেবে ২০২৬ বিশ্বকাপে মেসির বয়স হবে ৩৯। ঐ বয়সে মেসি লম্বা রেসের দৌড়ে কুলিয়ে উঠতে পারবেন, নাকি কাতারেই শেষ হবে মেসির বিশ্বকাপ, তা এখন সময়ের প্রশ্ন।
এদিকে ৩৪তম জন্মদিনে লিওনেল মেসি সুখবর দিচ্ছেন বার্সা সমর্থকদের। স্প্যানিশ ক্লাবটির সঙ্গে আগামী ২০২৩ সালের জুন পর্যন্ত নতুন চুক্তি করতে যাচ্ছেন বলে জানাচ্ছে ফরাসি গণমাধ্যমগুলো।
গত আগস্টেই মেসি বার্সা ছাড়ার ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন এই আর্জেন্টাইন তারকা। কিন্তু রিলিজ ক্লজ জটিলতার কারণে থেকে যেতে হয় বার্সেলোনাতে।
তবে ফরাসি গণমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদন অনুযায়ী মেসির জন্মদিনেই নতুন করে চুক্তির ঘোষণা দিতে যাচ্ছেন বার্সেলোনার প্রেসিডেন্ট হোয়ান লাপোর্তা।
গণমাধ্যমগুলোর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মেসি বার্সেলোনার সঙ্গে সবশেষ চুক্তি করেছিলেন ২০১৭ সালে। ওই চুক্তির চুক্তির মেয়াদ শেষ হবে চলতি মাসের ৩০ জুন। দীর্ঘ চার বছর মেয়াদি এই চুক্তির অর্থের পরিমাণ ছিল প্রায় ৫৫ কোটি ৫২ লাখ ৩৭ হাজার ৬১৯ ইউরো।
সে হিসাবে ২০১৭ সাল থেকে প্রতি মৌসুমে মেসি বার্সেলোনা থেকে আয় করেন ১৩ কোটি ৮০ লাখ ইউরো।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »