Ultimate magazine theme for WordPress.

অন্তঃসত্ত্বা দ্বিতীয় স্ত্রীর লাশ উদ্ধার, পরিবারের দাবি হত্যা

0

ক্রাইম টিভি বাংলা অনলাইন ডেস্ক…ফরিদপুরের নগরকান্দায় মুক্তি আক্তার (২৫) নামে অন্তঃসত্ত্বা এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। বৃহস্পতিবার সকালে নগরকান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। পরে লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।
নিহত মুক্তি আক্তার নগরকান্দা পৌর এলাকার বালিয়া গ্রামের কামরুল আলমের দ্বিতীয় স্ত্রী।
সংশ্লিষ্টরা জানান, কামরুল চার মাস আগে পৌর এলাকার মিরাকান্দা গ্রামের বিল্লাল ফকিরের মেয়ে মুক্তি আক্তারকে পরিবারের অজান্তে বিয়ে করেন। প্রথম স্ত্রী বিষয়টি মেনে না নেওয়ায় মুক্তিকে নিজ বাড়িতে স্থান দিতে পারেননি কামরুল। কামরুল মুক্তিকে নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় অস্থায়ীভাবে অবস্থান করতেন।
নিহতের স্বামীর দাবি, ৫ দিন আগে উপজেলার চাঁদহাট গ্রামের কামরুলের খালাতো ভাই ফরিদ মুন্সীর বাড়িতে বেড়াতে যায়। বুধবার রাত ১০টার দিকে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আড়ার সঙ্গে ঝুলে আত্মহত্যা করে মুক্তি।
তবে মুক্তির বাবা বিল্লাল ফকির অভিযোগ করে বলেন, আমার মেয়ে আত্মহত্যা করেনি, তাকে হত্যা করা হয়েছে। মুক্তি ২ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিল।
বাড়ির মালিক ফরিদ মুন্সী বলেন, রাতের খাবার শেষে দক্ষিণ পাশের ঘরে দুজনকে ঘুমাতে দেই। রাত ১০টার দিকে হঠাৎ কামরুল চিৎকার দিয়ে বলে মুক্তি গলায় ওড়না পেঁচিয়ে ঝুলছে। দ্রুত ঘরে গিয়ে মুক্তিকে নিচে নামিয়ে হাসপাতালে নিয়ে আসি। হাসপাতালের ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
থানার ওসি সেলিম রেজা বিপ্লব বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ফরিদপুর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। রিপোর্ট পাওয়ার পর আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সুত্র – যুগান্তর

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »