Ultimate magazine theme for WordPress.

ফিনল্যান্ডকে হারিয়ে রাশিয়ার প্রথম জয়

0

ক্রাইম টিভি বাংলা অনলাইন ডেস্ক…প্রথম ম্যাচে ফেবারিট বেলজিয়ামের কাছে ৩-০ গোলে হেরেছিল রাশিয়া। অন্যদিকে ঘটনাবহুল প্রথম ম্যাচে ডেনমার্ককে পরাজিত করেছিল ফিনল্যান্ড। সেই রাশিয়াই আজ মুখোমুখি হলো ফিনল্যান্ডের। তাদেরকে ১-০ গোলে হারিয়ে এবারের ইউরোয় প্রথম জয়ের দেখা পেলো রাশিয়ানরা।
রাশিয়ার হয়ে একমাত্র জয়সূচক গোলটি করলেন ইতালিয়ান সিরি-আ তে আটলান্টার হয়ে খেলা স্ট্রাইকার আলেকসেই মিরানচুক। ম্যাচের প্রথমার্ধের ইনজুরি সময়ে (৪৫+২ মিনিটে) ম্যাচের একমাত্র গোলটি করেন তিনি।
সেন্ট পিটার্সবার্গে অনুষ্ঠিত গ্রুপ ‘বি’-এর এই ম্যাচে প্রাধান্য দিয়ে খেলেছেন স্বাগতিক রাশিয়াই। ম্যাচের পরিসংখ্যানের দিকে তাকালেই সেটা বোঝা যায়। ৫৬ ভাগ বলের দখল ছিল রাশিয়ার দখলেই। ৪৪ ভাগ বল ছিল ফিনল্যান্ডের দখলেই।
৪৫+২ মিনিটে করা আলেকসেই মিরানচুকের সেই গোলই শেষ পর্যন্ত রাশিয়া এবং ফিনল্যান্ডের মধ্যে পার্থক্য গড়ে দিয়েছে। ফিনল্যান্ডের আগের ম্যাচেই ডেনমার্কের মিডফিল্ডার ক্রিশ্চিয়ান এরিকসেন হার্ট অ্যাটাক করেছিল। তার স্মরণেই ফিনল্যান্ডের ফুটবলাররা আজ ‘গেট ওয়েল ক্রিশ্চিয়ান’ লেখা টি-শার্ট পরে মাঠে খেলতে নেমেছিল।
ম্যাচ শুরুর একটু পরই এগিয়ে যেতে পারতো ফিনল্যান্ড। তিন মিনিটের মাথায় জোয়েল পোজানপালোর একটি দুর্দান্ত হেড গিয়ে আশ্রয় নেয় রাশিয়ার জালে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ভিএআরের সহায়তা নিয়ে সেই গোলটি বাতিল করে দেন রেফারি।
ম্যাচের ২৬তম মিনিটেই ধাক্কা খায় রাশিয়া। তাদের মিডফিল্ডার মারিও ফার্নান্দেজ ইনজুরির শিকার হন। যার ফলে তাকে স্ট্রেচারে করে মাঠ থেকে সরিয়ে নেয়া হয়। তবে এর একটু পরই দুর্দান্ত একটি গোলের সুযোগ মিস করে রাশিয়া।
এছাড়া প্রথমার্ধে দু’দলের আর কেউই খুব একটা গোল হওয়ার মত আক্রমণ কিংবা পাল্টা আক্রমণ করতে পারেনি। মনে হচ্ছিল গোলছাড়াই শেষ হবে প্রথমার্ধ।
কিন্তু প্রথমার্ধের ইনজুরি সময়ে গোলের তালা খোলেন মিরানচুক। আর্তেম জিউবার সঙ্গে ওয়ান-টু করে বল নিয়ে যান ফিনল্যান্ডের গোলমুখে। এরপরই বাম পায়ের শটে ডান কর্নারে গোলরক্ষের মাথার ওপর দিয়ে বল জড়িয়ে দেন ফিনল্যান্ডের জালে।
দ্বিতীয়ার্ধেও ফিনল্যান্ড গোল পরিশোধ করার তেমন জোরালো কোনো সুযোগ তৈরি করতে পারেনি। রাশিয়াও পারেনি আর গোল দিতে। সুতরাং, ম্যাচ শেষ হলো ১-০ গোলের ব্যবধানেই।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »