Ultimate magazine theme for WordPress.

এক সময়ের তুখোড় ক্রিকেটার থেকে জনপ্রিয় ইসলামি বক্তা ত্ব-হা আদনান

0

ক্রাইম টিভি বাংলা অনলাইন ডেস্ক…নিখোঁজের পর ছয় দিন পেরিয়ে গেলেও জনপ্রিয় ইসলামি বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানের কোনো সন্ধান দিতে পারেনি পুলিশ।
ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ ও রংপুর জেলা পুলিশ বলছে, তারা কাজ করে যাচ্ছেন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত তার অবস্থান শনাক্ত করতে পারেননি।
যদিও নিখোঁজের পর থেকে পুলিশ ত্ব-হার বিষয়ে অনীহা দেখিয়েছে বলে অভিযোগ তার পরিবারের।
এদিকে ত্ব-হার সন্ধান চেয়ে ফেসবুকে হ্যাসট্যাগ প্রচারণা চালু হয়েছে। দেশের বিভিন্ন স্থানে মানববন্ধনও হয়েছে। ফেসবুকজুড়ে নিখোঁজ ত্ব-হার জন্য উদ্বেগ প্রকাশ করতে দেখা যাচ্ছে।
এমন পরিস্থিতিতে অনেকেই জানতে চেয়েছেন কে এই বক্তা ত্ব-হা আদনান? সোশ্যাল মিডিয়ায় কীভবে এতো পরিচিতি পেয়েছেন তিনি?
৩১ বছর বয়সি এ ইসলামি বক্তার নাম মো. আফছানুল আদনান ত্ব-হা। তবে আবু ত্ব-হা মোহাম্মদ আদনান নামেই সমধিক পরিচিত। তার বাড়ি রংপুরে। রংপুর মহানগরীর সেন্ট্রাল রোডের আহলে হাদিস মসজিদ-সংলগ্ন গলিতে তার পৈতৃক বাসা। বিয়ের পর স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে শালবন এলাকার চেয়ারম্যানের গলিতে একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। আদনানের দুই জন স্ত্রী। প্রথম স্ত্রীর নাম আবিদা নুর ও দ্বিতীয় স্ত্রীর নাম সাবিকুন্নাহার। প্রথম স্ত্রীর ঘরে তিন বছরের একটি মেয়ে ও দেড় বছর বয়সি একটি ছেলেসন্তান আছে।
দ্বিতীয় স্ত্রী সাবিকুন নাহার সারা মিরপুর আল ইদফান ইসলামী গার্লস মাদ্রাসার পরিচালক ও শিক্ষক। তিন মাস আগে তাদের বিয়ে হয়েছিল।
একসময় দুর্দান্ত ক্রিকেট খেলতেন ত্ব-হা আদনান। রংপুরের ক্রিকেট অঙ্গনে তুখোড় ক্রিকেটার হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন। ক্রিকেটই ছিল তার ধ্যান-জ্ঞান। কিন্তু অনার্সে পাড়াকালীন ধর্মের দিকে ধীরে ধীরে ঝুঁকে পড়েন এই ক্রিকেটার। ধর্মের প্রচার প্রচারণায় এগিয়ে যেতে ক্রিকেটকে বিসর্জন দেন তিনি।
অবশ্য ছেলেবেলা থেকেই ধর্মীয় বিষয়ে আগ্রহ ছিল আদনানের। প্রাতিষ্ঠানিকভাবে কোনো আরবি প্রতিষ্ঠানে না পড়লেও ইসলাম ধর্মের প্রচুর বই পড়তেন এবং গবেষণা করতেন সময় পেলেই।
আদনানের মা আজেদা বেগম জানিয়েছেন,আদনান ত্ব-হার হাতেখড়ি রংপুর লায়ন্স স্কুল অ্যান্ড কলেজ। সেখান থেকে এইচ এস সি পাশের পর ভর্তি হন রংপুর কারমাইকেল কলেজে। অনার্সে দর্শনে বিষয় নিয়ে পড়েছেন। মাস্টার্সে দর্শনে ফার্স্টক্লাস পান তিনি। এরপর বাড়ির পাশে আল জামেয়া আসসালাফিয়া মাদ্রাসায় পড়াশুনা করেছেন আদনান।
সেই শিক্ষা নিয়ে করোনার শুরু থেকে অনলাইনে আরবি পড়াতেন তিনি। পাশাপাশি দেশের বিভিন্ন মসজিদে গিয়ে জুমার খুতবা দিতেন। আদনান ত্ব-হা ধর্মীয় বক্তা হিসেবে দেশব্যাপী পরিচিত। তার ফেইসবুকে পেজের অনুসারীর সংখ্যা ৫২ হাজার।
ইসলাম নিয়ে দেওয়া তার কয়েকটি বক্তব্য ইউটিউব প্ল্যাটফর্মে ব্যাপক ভাইরাল হয়েছে। এসব ভিডিওতে ধর্মীয় উগ্রবাদ বা সাম্প্রদায়িক উস্কানুমূলক কোনো বক্তব্য নেই বলে জানাচ্ছেন শ্রোতারা।
আদনানের পরিবারের দাবি, তিনি উগ্রবাদকে কখনোই সমর্থ করেন না।
তবে ধর্মীয় মতবাদ নিয়ে আলেমদের একটি পক্ষের সঙ্গে তার মতবিরোধ তৈরি হয়েছে বলে তথ্য দিয়েছেন আদনানের স্ত্রী।
সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে খুব দ্রুত পরিচিত লাভ করেছেন আদনান। তার ওয়াজের ভিডিওগুলো খুব সমাদৃত। এর কারণ হিসেবে অনেকে মত, আর দশজন বক্তার মতো গতানুগতিক ছিলেন না আবু ত্ব-হা। প্রচলিত ওয়াজের ভঙ্গিতে কথা বলেন না তিনি। অত্যন্ত স্মার্ট, পরিষ্কার ও মানসম্মত বাংলায় চমৎকার বাচনভঙ্গি তার। প্রতিটি বক্তব্য তার গোছানো, উচ্চারণে আভিজাত্য স্পষ্ট। বক্তব্যে কোরাআনের আয়াত ও হাদিসের দলিল পেশ করেন সব সময়।
ঢাকার একটি মসজিদে খুতবা দেওয়ার উদ্দেশে গত বৃহস্পতিবার রংপুর থেকে বৃহস্পতিবার বিকেল চারটার দিকে ভাড়া করা একটি গাড়িতে ঢাকায় রওনা দেন আদনান।
এর পর থেকে দুই সঙ্গী আবদুল মুহিত ও ফিরোজ ও গাড়িচালক আমির উদ্দিন ফয়েজসহ নিখোঁজ আদনান। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২টা ৩৬ মিনিটে আদনানের সঙ্গে ফোনে শেষ কথা বলেন তার স্ত্রী। ওই সময় তিনি রাজধানীর গাবতলীতে এসে পৌঁছেছেন বলে জানান আদনান। এরপর থেকেই তার মোবাইল বন্ধ আছে। গাড়িসহ তার সঙ্গীরাও নিখোঁজ রয়েছেন।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গুগল ম্যাপ অনুযায়ী ত্ব-হার স্ত্রীর বাসা থেকে তার গাড়ির দূরত্ব ছিল ৬ দশমিক ৪ কিলোমিটার দূরে। সেখানে পৌঁছাতে সময় লাগতো ১৮ মিনিট। এর কিছুক্ষণ পর থেকেই তার ফোন বন্ধ, তিনি নিঁখোজ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »