Ultimate magazine theme for WordPress.

অনলাইন গেমসের ফলে ধ্বংস হচ্ছে তরুণ সমাজ।

0

                

  #মোঃ রুবেল আহমেদ স্টাফ রিপোর্টার —–যে বয়সে তাদের পড়াশুনা,খেলাধুলা নিয়ে ব্যস্ত থাকার কথা,
অথচ সে বয়সে আজ ভিন্ন চিএ।শিশু থেকে শুরু করে তরুণ যুবক সবার হাতে স্মার্ট ফোন।লকডাউনে স্কুল কলেজ বন্ধ থাকায় সিলেট জেলা জৈন্তাপুরের তরুণ’রা বেচেঁ নিয়েছে অনলাইন গেমস্।ফ্রি ফায়ার,পাপজিসহ বেশ কিছু গেমের নেশায় আসক্ত হয়ে ধ্বংস হচ্ছে সিলেট জেলা জৈন্তাপুরের তরুণ সমাজ।রাস্তাঘাট সহ আনাচে কানাচে যে কোন জায়গায় লক্ষ্য করলে দেখা যায়,কখনো একা ‘আবার কখনো দল বেধে গেমস্ খেলছে তরুণ’রা।
দিন রাত এক করে সময় পেলে এ গেমস্ খেলে তরুণেরা।

সামাজিক,পারিবারিক ও দেশের প্রতি কোন দায়িত্বজ্ঞান নেই।
নেই কোন বড়দের মেনে চলা।

যার কারনে তাদের মধ্যে থেকে হারিয়ে যাচ্ছে দেশপ্রেম,দায়ীত্ববোধ ও ঘরের মানুষের প্রতি ভালোবাসা।
এরা দেশকে নিয়ে ভাবে না।এমনকি পরিবারের প্রতি নেই কোন টান।

গেমস্ খেলতে প্রয়োজন এম্বি।আর এম্বি কেনার জন্য প্রয়োজন অর্থ।আর যার কারণে ব্যয় হচ্ছে অর্থের।আর তরুণ’রা বেশী ভাগ বেকার যার কারণে এম্বি কিনতে যখন টাকার সমস্যা হয়।
তখন এরা চুরি ও ছিনতাইয়ের দিকে ধাবিত হয়।এতে তরুণদের সাথে সমস্যায় পড়ছে তার পরিবার।এ ভাবেই গেমসের কারনে ধ্বংস হচ্ছে এদেশের তরুণপ্রজন্ম।যার বেশী ভাগ স্কুল কলেজে পড়ূয়া ছেলেমেয়েরা।
তরুণপ্রজন্ম হতাশা,অনেক তরুণ আছে যারা বেকার সমস্যায় ভুগছে তারা পাচ্ছে না কোন চাকরি বা কাজ।
যেহেতু,দীর্ঘদিন (কোভিড-১৯)করোনা
ভাইরাস সমস্যার কারনে স্কুল কলেজ বন্ধ,তার কারনে তরুণ’রা অবসর সময় পাড় করার জন্য এ গেমস্ খেলছে।
আর এ গেমস্ খেলার কারনে,এক সময় আসক্ত হয়ে পরেছে এ গেমসে্র দিকে।

পরিবারের প্রতি একটাই দাবী,
ছেলে মেয়েদের এ খেলা থেকে বিরত রাখুন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »