Ultimate magazine theme for WordPress.

ব্রাজিলে পেলের নামে হচ্ছে না মারাকানা স্টেডিয়াম

0

ক্রাইম টিভি বাংলা অনলাইন ডেস্ক …ঐতিহ্যবাহী মারাকানা স্টেডিয়াম ব্রাজিলিয়ান কিংবদন্তী পেলের নামে নামকরণ না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রিও ডি জেনিরো কর্তৃপক্ষ। ব্রাজিলের সর্বকালের সেরা ফুটকলার ‘কালোমানিক’ খ্যাত পেলের নামে ফুটবল বিশ্বের অন্যতম পুরনো ও জনপ্রিয় এ স্টেডিয়ামটির নামকরণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। তবে সমর্থকদের তোপের মুখে সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে রিও ডি জেনিরো রাজ্য সরকার।
চলতি বছরের মার্চে রিও ডি জেনিরোর রাজ্য আইনসভায় মারাকানা স্টেডিয়ামের নাম বদলানোর প্রস্তাব নিয়ে ভোট হয়। প্রস্তাব অনুযায়ী স্টেডিয়ামের নতুন নাম হবে ‘এডসন আরান্তেস দো নাসিমেন্তো- রেই পেলে স্টেডিয়াম’।
‘এডসন আরান্তেস দো নাসিমেন্তো’ হচ্ছে ৮০ বছর বয়সী পেলের পুরো নাম আর ‘রেই’ মানে ‘পর্তুগালের রাজা’। নামকরণ চূড়ান্ত হওয়ার আগে রিও ডি জেনিরোর রাজ্য গভর্নরের অনুমোদন প্রয়োজন ছিল। তবে সেই সিদ্ধান্তে ভেটো দিয়েছেন রাজ্য গভর্নর ক্লডিও কাস্ত্রো।
প্রতিবাদকারীদের দাবি, রিওর বাসিন্দা নন এমন কারো নামে মারাকানার নামকরণ করা ঠিক হবে না। তাদের দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়েছেন, পেলের ১৯৭০ বিশ্বকাপজয়ী দলের সতীর্থ মারিও ফিলহোর নাতি জেরসন।
ব্রাজিলের জার্সিতে ৩টি বিশ্বকাপজয়ী পেলে সান্তোসের হয়ে ভাস্কো দা গামার বিপক্ষে ১৯৬৯ সালে এ মারাকানায় ক্যারিয়ারের এক হাজারতম গোলটি করেন। এ স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয় ১৯৫০ ও ২০১৪ বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচ। এছাড়া ২০১৬ অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানও হয় এখানেই।
বলা হয়, মারাকানায় অনুষ্ঠিত উরুগুয়ে ও ব্রাজিলের মধ্যকার ১৯৫০ বিশ্বকাপের ফাইনাল ম্যাচটি গ্যালারিতে বসে প্রায় ২ লাখ মানুষ উপভোগ করেছেন। ম্যাচটিতে জয়ী হয়ে বিশ্বকাপের শিরোপা জেতার কৃতিত্ব দেখায় উরুগুয়ে।
শুরুতে স্টেডিয়ামের নামকরণ করা হয়েছিল মারিও ফিলহো নামের এক সাংবাদিকের নামে। ’৪০ এর দশকে এই স্টেডিয়াম নির্মাণের জন্য লবিং করেছিলেন তিনি। কিন্তু পরে মারাকানা নামের এলাকায় অবস্থিত হওয়ায় সেই নামেই পরিচিতি পায় স্টেডিয়ামটি। পেলে যেহেতু কখনই রিওতে বসবাস করেননি সে কারণেই সমালোচকরা তার নামে ঐতিহ্যবাহী এই স্টেডিয়ামটি নামাঙ্কিতের ব্যপারে ঘোর আপত্তি জানায়।
পেলে মিনাস জেরাইসে জন্মগ্রহণ করলেও জীবনের বেশিরভাগ সময়ই কাটিয়েছেন সাও পাওলোতে।

সুত্র -স্পোর্টস ২৪ মেইল

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »