Ultimate magazine theme for WordPress.

এমবিবিএস ভর্তিযুদ্ধ আগামীকাল, কেন্দ্রে যাচ্ছে প্রশ্নপত্র।

0

ক্রাইম টিভি বাংলা অনলাইন ডেস্ক…দেশের সরকারি ও বেসরকারি মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস প্রথম বর্ষের (২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষ) ভর্তি পরীক্ষা আগামীকাল শুক্রবার। সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত সারাদেশের ১৯টি কেন্দ্রের ৫৫টি ভেন্যুতে ১০০ নম্বরের নৈর্ব্যক্তিক প্রশ্নে একযোগে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এ বছর ভর্তি পরীক্ষায় ১ লাখ ২২ হাজার ৮৭৪ ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী অংশ নেবেন।
মহামারি করোনাভাইরাস সংক্রমণের অব্যাহত ঊর্ধ্বগতিতে পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকরা কিছুটা আতঙ্কগ্রস্ত থাকলেও প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্যবিধি মেনে সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা গ্রহণের সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে স্বাস্থ্য শিক্ষা অধিদফতর।
অধিদফতরের পরিচালক (চিকিৎসা শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. এ কে এম আহসান হাবিব বৃহস্পতিবার বিকেলে জাগো নিউজকে বলেন, আগামীকাল (২ এপ্রিল) অনুষ্ঠিতব্য এমবিবিএস ভর্তি পরীক্ষার সার্বিক প্রস্তুুতি ইতোমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। আজ সকাল থেকে ১৯টি মেডিকেল কলেজের ১৯টি কেন্দ্রের ৫৫টি ভেন্যুর জন্য একজন ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে চারজন পুলিশ সদস্য এবং সংশ্লিষ্ট মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ বা তার প্রতিনিধি এসে প্রশ্নপত্র নিয়ে গেছেন।
তিনি আরও বলেন, ঢাকার বাইরের ৪০টি ভেন্যুর জন্য প্রশ্নপত্র পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। রাজধানীর ১৫টি ভেন্যুর প্রশ্নপত্রও ম্যাজিস্ট্রেট, পুলিশ ও অধ্যক্ষ বা তার প্রতিনিধি গ্রহণ করে তা সিলগালা করে রেখে গেছেন। আগামীকাল শুক্রবার সকালে এসে প্রশ্নপত্র সংগ্রহ করে পরীক্ষার হলে নিয়ে যাবেন।
আহসান হাবিব জানান, আগামীকাল সকাল ৮টায় পরীক্ষা কেন্দ্র খুলে দেয়া হবে এবং সকাল ১০টায় গেট বন্ধ করে দেয়া হবে। ইতোমধ্যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে পরীক্ষার্থীদের সকাল ৮টার মধ্যে পরীক্ষা কেন্দ্রে উপস্থিত হওয়া পরামর্শ দেয়া হয়েছে।
জানা গেছে, এমবিবিএস প্রথম বর্ষ ভর্তি পরীক্ষায় করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে প্রতিটি কেন্দ্রে একটি করে আইসোলেশন কক্ষের ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে। শুধু তাই নয়, এবারই প্রথম পরীক্ষা কেন্দ্রে অসুস্থ পরীক্ষার্থীদের জরুরি চিকিৎসা প্রদানে অক্সিজেন সিলিন্ডারসহ অন্যান্য প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে।
করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে প্রত্যেক পরীক্ষার্থীকে মাস্ক পরে পরীক্ষা কেন্দ্রে আসতে হবে এবং এক ঘণ্টা পরীক্ষার পুরো সময় মাস্ক পরে থাকতে হবে। ইতোমধ্যে মাস্ক পরে আসার বিষয়টি পরীক্ষার প্রবেশপত্রে উল্লেখ করা আছে। তবুও কেউ ভুল করে মাস্ক পরিধান করে না আসলে পরীক্ষা কেন্দ্র থেকে মাস্ক সরবরাহেরও ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে।
পরীক্ষার্থীদের সঙ্গে আসা অভিভাবকরা যেন শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে কেন্দ্রের বাইরে অবস্থান করতে পারেন, সেজন্য তাদের বসার ব্যবস্থাও সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তারা করবেন বলে জানা গেছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »