Ultimate magazine theme for WordPress.

উড়োজাহাজ দুর্ঘটনার তদন্তে নেই বিধিমালা

0

ক্রাইম টিভি বাংলা অনলাইন ডেস্ক…বাংলাদেশের বেসামরিক বিমান চলাচল আইন পাস হয়েছে ২০১৭ সালে।
কিন্তু দুর্ঘটনার তদন্তে হয়নি কোনো বিধিমালা।
সে কারণে কোনো দুর্ঘটনার তদন্ত করতে গিয়ে নানা জটিলতায় পড়তে হয় সরকারের গঠিত কমিটিকে।
তাই বিমান দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধান এবং অনভিপ্রেত ঘটনা এড়ানোর জন্য তারা সব সময়ই সুপারিশ করে থাকে।
শুধু তাই নয়, এ বিষয়ে বিধিমালা না থাকায় আন্তর্জাতিক বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (আইসিএও) অডিটেও তৈরি হতে পারে জটিলতা।
কারণ বর্তমান পদ্ধতির বৈধতা দিতে রাজি নয় সংস্থাটি।

সংশ্লিষ্টরা জানান, বর্তমানে বিমান দুর্ঘটনা তদন্তের জন্য কোনো বিধি না থাকায় শিকাগো কনভেনশনের পরিশিষ্ট ১৩-এর আলোকে তদন্ত কাজ করা হয়, আইসিএও কর্তৃক গ্রহণযোগ্য নয়।
প্রকৃতপক্ষে অনুমোদিত বিধি ছাড়া কমিটির কার্যক্রমের বৈধতা দেয় না আন্তর্জাতিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ।
এর মধ্যে আগামী নভেম্বরে আইসিএওর মাধ্যমে বাংলাদেশের বেসামরিক বিমান চলাচলের ওপর অডিট হওয়ার কথা।
তার আগে দুর্ঘটনা তদন্তে সংস্থাটির গাইডলাইন অনুযায়ী বিধি না হলে সেটি আটকে যেতে পারে অডিট আপত্তিতে।
এতে করে দেশের ভাবমূর্তির ওপর প্রভাব পড়বে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন।

জানা গেছে, গেজেটের মাধ্যমে ২০১৭ সালের ১৯ জুলাই বেসামরিক বিমান চলাচল আইন, ২০১৭ কার্যকর হয়।
এ আইনের ১৯(১) ধারা বলে বিমান দুর্ঘটনা ও মারাত্মক দুর্ঘটনা তদন্ত কমিটি গঠন করে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়।
এর পর থেকে ওই কমিটির মাধ্যমেই চলছে যে কোনো দুর্ঘটনার তদন্তের কাজ।
তবে কোনো তদন্তপরিচালনা করতে জাতীয় আইনের পাশাপাশি দরকার বিধিরও।
কিন্তু দেশে সেই বিধি প্রণীত না হওয়ায় তদন্ত সংক্রান্ত কোনো ধরনের আদেশ, পলিসি ও পদ্ধতি, প্রশিক্ষণ বিষয়ে পলিসি, প্রশাসনিক অবকাঠামো, অর্থনৈতিক পলিসি, তদন্ত বিষয়ে হ্যান্ডবুক, চেকলিস্ট, ইন্সপেক্টর ক্রেডেনশিয়াল, ইনভেস্টিগেটর ফিল্ড কিট, মৃত বা ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের বিষয়ে ব্যবস্থা ইত্যাদির কোনো ডকুমেন্ট প্রস্তুত করতে পারছে না দুর্ঘটনা তদন্ত কমিটি।
তা ছাড়া আইসিএও কর্তৃক পরিচালিত অডিট প্রোগ্রামেও বিধি সম্পর্কিত প্রোটোকল কোয়েশচেন (পিকিউ) রয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »