Ultimate magazine theme for WordPress.

হোয়াইটওয়াশের লজ্জা এড়াতে পারবে বাংলাদেশ?

0

ক্রাইম টিভি বাংলা অনলাইন ডেস্ক ……আগামীকাল ২৬ মার্চ বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০তম বার্ষিকীতে ওয়েলিংটনে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তৃতীয় ওয়ানডে খেলতে নামছে জাতীয় ক্রিকেট দল। বিশেষ এ দিন দেশকে জয়ের গৌরব এনে দিতে পারবেন কি তামিম ইকবাল, মুস্তাফিজুর রহমানরা? জিতলে সিরিজটা ১-২ করতে পারবে বাংলাদেশ, আর হারলে ০-৩ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ। সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় ভোর ৪টায়।
ক্রাইস্টচার্চে দ্বিতীয় ম্যাচ জয়ের মধ্য দিয়ে সিরিজ নিশ্চিত করে ফেলেছে নিউজিল্যান্ড। কিউইদের ওই জয়ে কালকের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটি শুধুই আনুষ্ঠানিকতায় রূপ নিয়েছে। কিন্তু ওয়ানডে সুপার লিগের কারণে প্রতিটি ম্যাচই গুরুত্ববহ এবং ওয়েলিংটনে নিউজিল্যান্ডকে যেকোনো মূল্যে হারিয়ে অন্তত ১০ পয়েন্ট নিশ্চিত করতে চাইবে বাংলাদেশ। যদিও রস টেলর ফিরছেন বলে চাঙ্গা স্বাগতিক দলটি। অভিজ্ঞ এ ব্যাটসম্যান হ্যামস্ট্রিং চোটের কারণে প্রথম দুই ওয়ানডে খেলতে না পারলেও ফিটনেস পরীক্ষায় উতড়ে গেছেন বলে খেলতে পারছেন ওয়েলিংটনে।
মিডল অর্ডারে কিউইদের শক্তি বাড়াবেন টেলর। ক্রাইস্টচার্চে টম ল্যাথাম ও ডেভন কনওয়ে ইনিংসকে পুনরুজ্জীবিত করার আগে একটি পর্যায়ে স্বাগতিকদের সংগ্রহ ছিল ৫৩/৩। চতুর্থ উইকেটে এ দুজন বোর্ডে যোগ করেন ১১৩ রান। এরপর ক্যারিয়ারের পঞ্চম ওয়ানডে পূর্ণ করে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন অধিনায়ক ল্যাথাম।
দলকে জেতানোর পথে জিমি নিশামকে নিয়ে ৭৬ ও ড্যারিল মিচেলকে নিয়ে মূল্যবান ৩৩ রান যোগ করেন তিনি। ল্যাথাম অবশ্য জীবন পেয়েছেন ব্যক্তিগত ৫৮ রানে, আর নিশাম জীবন পান তিন রানে। ক্রাইস্টচার্চে বাংলাদেশের হারের অন্যতম কারণ বাজে ফিল্ডিং। তামিম ইকবাল ও মোহাম্মদ মিথুনের হাফ সেঞ্চুরিতে ভর করে ২৭১ রান তোলে টাইগাররা। যদিও বড় সংগ্রহকে পুঁজি করে দলকে জেতাতে পারেনি বাংলাদেশের বোলাররা।
নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে জিততে চাইলে কাল আরেকটি বড় সংগ্রহ দাঁড় করাতে হবে বাংলাদেশকে। তামিম ও তার সতীর্থরা অবশ্য প্রমাণ করেছেন, নিউজিল্যান্ডের মাটিতে তারা ভালো করার সামর্থ্য রাখেন।
বাংলাদেশের সামর্থ্যের কথা স্বীকার করে নিয়ে রস টেলর বলেছেন, গত ম্যাচে আমরা কিছুটা ভাগ্যের পরশও পেয়েছি। আমি নিশ্চিত, বাংলাদেশকে কিছুটা গৌরব নিয়েই সিরিজটা শেষ করতে চাইবে।
ওয়ানডে সিরিজ শেষে তিন ম্যাচের টি২০ সিরিজের মুখোমুখি হবে দুটি দল। প্রথম টি২০ ম্যাচ ২০ মার্চ, পরের দুটি যথাক্রমে ৩০ মার্চ ও ১ এপ্রিল।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »