Ultimate magazine theme for WordPress.

প্রতিবাদ বিক্ষোভের ঘটনায় ‘শিশুবক্তা’ রফিকুলসহ আটক ৩৩

0

ক্রাইম টিভি বাংলা অনলাইন ডেস্ক ……ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের প্রতিবাদে মতিঝিল এলাকায় বিক্ষোভ ও সংঘর্ষের ঘটনায় আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ‘শিশুবক্তা’ হিসেবে পরিচিত রফিকুল ইসলামসহ ৩৩ জনকে আটক করেছে পুলিশ। প্রথম আলোকে এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) মতিঝিল বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) সৈয়দ নুরুল ইসলাম।
ডিসি নুরুল ইসলাম বলেন, কোনো ধরনের অনুমতি না নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিপি নুরুল হকের লোকজন মতিঝিল এলাকায় বিক্ষোভ করেন। এ সময় বাধা দিলে পুলিশকে লক্ষ্য করে হামলা করেন নুরুল হকের লোকজন। এতে পুলিশের সাতজন সদস্য আহত হয়েছেন। চারজনকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে আটক করা হয়েছে ৩৩ জনকে। এদের মধ্যে আছেন ‘শিশুবক্তা’ হিসেবে পরিচিত রফিকুল ইসলাম।
নুরুল হকের নেতৃত্বে পুলিশের ওপর হামলা করা হয়েছে উল্লেখ করে ডিসি নুরুল ইসলাম বলেন, ‘নুরের নেতৃত্বে এই বিক্ষোভ, পুলিশের ওপর হামলা হয়েছে। আমরা নুরকে খুঁজছি।’

এ ব্যাপারে বক্তব্য জানার জন্য নুরুল হকের মুঠোফোনে কল দেওয়া হলে সেটি বন্ধ পাওয়া যায়।
তবে নুরুল হকের দলের ছাত্রসংগঠন ছাত্র অধিকার পরিষদের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সহসভাপতি ফাতিমা তাসনিম প্রথম আলোকে বলেন, ‘ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের প্রতিবাদে আমরা মতিঝিল এলাকায় শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিল করছিলাম। কোনো রকম উসকানি ছাড়াই পুলিশ আমাদের ওপর লাঠিচার্জ করে, মারধর করে, রাবার বুলেট ছোড়ে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ছাত্র অধিকার, যুব অধিকারসহ তাদের সংগঠনের ৩৫ থেকে ৪০ জনকে গ্রেপ্তার করে।’
ফাতিমা তাসনিম আরও বলেন, পুলিশের মারধরের শিকার হয়ে নুরুল হক নুরসহ তাঁদের দলের ৪০ থেকে ৫০ জন আহত হয়েছেন। এঁদের মধ্যে কয়েকজন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছেন। বাকিরা চিকিৎসা নিচ্ছেন গণস্বাস্থ্য নগর হাসপাতালে।

‘শিশুবক্তা’ রফিকুলের মুক্তি দাবি হেফাজতের

এদিকে পুলিশের হাতে আটক রফিকুল ইসলামের মুক্তি দাবি করেছেন হেফাজত ইসলামের মহাসচিব আল্লামা নুরুল ইসলাম জেহাদি। আজ বিকেলে এক বিবৃতিতে তিনি এ দাবি জানান।

বিবৃতিতে হেফাজতে ইসলামের মহাসচিব বলেন, ‘নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশে আগমনের বিরোধিতা করে যুব অধিকার পরিষদের বিক্ষোভ মিছিল থেকে তরুণ বক্তা রফিকুল ইসলামকে আটক করা হয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। আমরা অনতিবিলম্বে তাঁর নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করছি। মোদির মতো ইসলামের শত্রুর আগমনের বিরোধিতা করায় একজন আলেমকে আটক করার ঘটনা কোনোভাবেই দেশবাসী মেনে নেবে না।’

ডিএমপির মতিঝিল বিভাগের ডিসি সৈয়দ নুরুল ইসলাম বলেন, মতিঝিলে বিক্ষোভের সময় ঘটনাস্থল থেকে রফিকুলকে আটক করা হয়। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাঁকে ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে।

রফিকুলকে আটক করার পর তাঁকে প্রিজন ভ্যানে তোলা হয়। তখন রফিকুল ফেসবুকে লাইভ করেন। পরে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের প্রতিবাদে আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর মতিঝিল এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল করে নুরুল হকের যুব অধিকার পরিষদসহ কয়েকটি সংগঠন। অন্তত তিন শতাধিক ব্যক্তি এই বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নেয়। দুপুর ১২টায় পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষ হয়। তখন মতিঝিল এলাকার সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। মানুষের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

সুত্র প্রথম আলো

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »