Ultimate magazine theme for WordPress.

মানহীন নাটকের চেয়ে উপস্থাপনা করাই ভালো: ঐন্দ্রিলা

0

ক্রাইম টিভি বাংলা অনলাইন ডেস্ক…..

ঐন্দ্রিলা আহমেদ। মডেল, অভিনেত্রী। বাংলাভিশনে প্রচার হচ্ছে তার উপস্থাপনায় রান্নাবিষয়ক অনুষ্ঠান শেফ’স কিচেন। সম্প্রতি ‘শেষের কবিতা’ শিরোনামের একটি গানে কণ্ঠ দিয়েছেন তিনি। রান্নার অনুষ্ঠান ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা হলো তার সঙ্গে-
শেফ’স কিচেন অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করে কেমন লাগছে?
ভালো। রান্না একটি শিল্প। সে জন্য এ ধরনের আয়োজনে সবার আগ্রহ বেশি। অনুষ্ঠানের মাধ্যমে নিজেও রান্না সম্পর্কে অনেক কিছু জানতে পারছি। আমি যেহেতু নিজেও রান্না করতে পছন্দ করি, তাই অনুষ্ঠানটি দারুণ উপভোগ করছি।

ঐন্দ্রিলা আহমেদ

দর্শক সাড়া কেমন পাচ্ছেন?
টেলিভিশনের পাশাপাশি ইউটিউবেও দর্শক এটি দেখছেন। অনেকেই ফোন করে উপস্থাপনার প্রশংসা করছেন। এই আয়োজনে প্রতি পর্বে একজন তারকা ও একজন শেফ উপস্থিত থাকেন। তাদের রান্নার পাশাপাশি থাকে স্বাস্থ্যসম্মত রান্নার টিপস ও খাবারের পুষ্টিগুণ নিয়ে আলোচনা। তাই অন্যান্য রান্নার অনুষ্ঠান থেকে একটু ব্যতিক্রম।
দর্শক সাড়া পাওয়ার কারণেই কি অভিনয়ের চেয়ে উপস্থাপনাকে প্রাধান্য দিচ্ছেন?
মানহীন নাটকে অভিনয়ের চেয়ে উপস্থাপনা অনেক ভালো। ক্যারিয়ারে ভালো নাটকের সঙ্গে মানহীন কিছু কাজও ছিল। এখন ভাবি, শুধু সংখ্যা বাড়িয়ে কী লাভ? দর্শকের মনে রাখার মতো যদি কাজই করতে না পারি, তাহলে অহেতুক পরিশ্রমের কোনো মানে হয় না। এই ভাবনা থেকেই বাছবিচার করে কাজ করছি। যে জন্য উপস্থাপনায় গুরুত্ব দিয়েছি।
উপস্থাপনা ছাড়া অভিনয়ে আর দেখা যাবে না?
আমার মনের মতো চরিত্র না হলে অভিনয় করছি না। অনেক কাজ আমাকে করতে হবে, এমনটি মনে করি না। সব সময় ভালো কাজের অপেক্ষায় থাকি। যদি সে রকম গল্প ও চরিত্র পাই তাহলে আবারও নাটকে অভিনয় করব। অভিনয়ের বাইরেও চাকরি ও সাংসারিক ব্যস্ততা রয়েছে। সবকিছু সামলে নিয়ে অভিনয় করছি। যেহেতু কাজ কম করছি, তাই ভালো গল্পের নাটকের কাজ নিয়েই দর্শকের কাছে ফিরতে চাই।
বুলবুল আহমেদের স্মৃতি সংরক্ষণে কোনো উদ্যোগ নিচ্ছেন?
বাবা যখন বেঁচে ছিলেন তখন বিভিন্নভাবে বলেছিলেন- আমি মরে গেলে আমার মেয়ে আমাকে ধরে রাখবে। সে চেষ্টা এখনও অব্যাহত রয়েছে। তার স্মৃতি ধরে রাখতে অনেক কাজ করছি। বেশ আগে তাকে নিয়ে গান লিখেছি। তৈরি করেছি ‘এক জীবন্ত কিংবদন্তির কথা’ নামে তথ্যচিত্র। প্রকাশ হয়েছে ‘একজন মহানায়কের কথা’ শিরোনামের বই। বাবার নামে ‘বুলবুল আহমেদ ফাউন্ডেশন ট্রাস্ট’ গঠন করেছি। আমার পরিবারের সদস্যদের সহায়তায় চলছে এর কার্যক্রম। বাবার স্মৃতি সংরক্ষণে আর্কাইভ করছি। যেখানে তার কাজ, সংগ্রহগুলো একসঙ্গে পাওয়া যাবে। এখনও কাজ বাকি রয়েছে।
শুনলাম, নতুন একটি গানও রেকর্ড করেছেন-
হ্যাঁ, বেশ আগেই ‘শেষের কবিতা’ শিরোনামে গানটি গেয়েছি। এর কথা ও সুর ফয়সাল আহমেদের। সংগীত আয়োজনে ছিলেন আমজাদ হোসেন। এটি প্রকাশ হবে জি সিরিজ থেকে। করোনার কারণে এর মিউজিক ভিডিওর শুটিং করা সম্ভব হয়নি। শিগগিরই শুটিং হবে। আশা করছি, আগের সব গানের মতো নতুন গানটিও শ্রোতাদের ভালো লাগবে।
নাচ নিয়েও আপনার বেশ আগ্রহ রয়েছে। এ নিয়ে কিছু পরিকল্পনা করছেন?
নাচ দিয়েই ক্যারিয়ার শুরু। এটিই আমার সবচেয়ে ভালোবাসার জায়গা। এখনও বাসায় নাচের চর্চা করছি। কোনো অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ পেলেই মঞ্চে আবারও নাচ নিয়ে হাজির হবো।

সুত্র -সমকাল

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »