Ultimate magazine theme for WordPress.

অল ব্রাজিলিয়ান ফাইনালে দক্ষিণ আমেরিকার সেরা পালমেইরাস

0

©ক্রাইম টিভি বাংলা অনলাইন ডেস্ক ♦ 

স্কোরলাইন গোলশূন্য, নির্ধারিত সময় পেরিয়ে যোগ করা সময়ও শেষের দিকে। চলছে অতিরিক্ত সময়ের ছক কষাকষি। এমন সময়ই সান্তোসের ডি-বক্সে উড়ে গেল বল, শূন্যে ভাসলেন ব্রেনো লোপেস। তার মাথার ছোঁয়া পেয়ে বল খুঁজে নিল ঠিকানা। উল্লাসে ফেঠে পড়লো পালমেইরাস। ২০২০ কোপা লিবের্তাদোরেসের ‘অল ব্রাজিলিয়ান’ ফাইনাল জিতে শিরোপা উল্লাসে মাতল পালমেইরাস।

ব্রাজিলের রিও ডে জেনেইরোর বিখ্যাত মারাকানা স্টেডিয়ামে শনিবারের শিরোপা লড়াইয়ে ১-০ গোলে জিতেছে সাও পাওলোর ক্লাবটি।

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সমতুল্য দক্ষিণ আমেরিকার ক্লাব ফুটবলের সর্বোচ্চ এই প্রতিযোগিতায় দ্বিতীয়বার শিরোপা জিতল পালমেইরাস। ১৯৯৯ সালে প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ক্লাবটি।

শুরুর আগে ম্যাচ ঘিরে ছিল রোমাঞ্চের রসদ। তবে গ্রীষ্মের তাপদাহে মাঠের ফুটবল দর্শকদের প্রত্যাশা পূরণ করতে পেরেছে কমই। নিরাপদ পথে হেঁটে দুই দলই ঘর সামলে পাল্টা আক্রমণে ওঠার পরিকল্পনায় মাঠে নেমেছিল।

ফলে, প্রথমার্ধে কোনো দলই তেমন কোনো সুযোগ তৈরি করতে পারেনি। দ্বিতীয়ার্ধে সান্তোস লক্ষ্যে কয়েকটি শট নিলেও তা পালমেইরাস গোলরক্ষক ওয়েভেরতনকে পরীক্ষায় ফেলতে পারেনি।

আট মিনিট যোগ করা সময়ে ম্যাচে উত্তেজনা ছড়ায়। সাইডলাইন পেরিয়ে যাওয়া বল ধরতে যান সান্তোস কোচ কুকা, ছুটে গিয়ে তার কাছ বল কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন পালমেইরাস ডিফেন্ডার মার্কোস রোচা। ওখান থেকেই শুরু, দু’দলের খেলোয়াড়রা কিছুটা হাতাহাতি ও তর্কে জড়িয়ে পড়েন। ছুটে গিয়ে রেফারি কুকাকে লাল কার্ড দেখান এবং খেলোয়াড়দের সতর্ক করে দেন।

বেশ কিছুক্ষণ পর আবারও শুরু হয় খেলা এবং তারপরই সেই মাহেন্দ্রক্ষণ। যোগ করা সময়ের নবম মিনিটে ডান দিক থেকে দুর্দান্ত এক ক্রস বাড়ান ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড রনি, আর লাফিয়ে হেডে শিরোপা নিশ্চিত করেন লোপেস। জায়গায় দাঁড়িয়ে বলের গোললাইন পেরিয়ে যাওয়া দেখেন সান্তোস গোলরক্ষক।

ফাইনালের সাদামাটা লড়াইয়ে ফুটবলপ্রেমীদের তৃষ্ণা না মিটলেও তা পালমেইরাসের বাঁধভাঙা শিরোপা উল্লাসে কোনো ছাপ ফেলেনি।

প্রাথমিক সূচি অনুযায়ী ম্যাচটি মূলত হওয়ার কথা ছিল গত বছর নভেম্বরে। কিন্তু করোনাভাইরাসে কারণে তা পিছিয়ে যায়।

পালমেইরাসের সঙ্গে মৌসুমটা দুর্দান্ত কাটছে কয়েক মাস আগে দলটির দায়িত্ব নেওয়া পর্তুগিজ কোচ আবেল ফেরেইরারও। গত অগাস্টে পাওলিস্তা স্টেট চ্যাম্পিয়নশিপ জিতেছে দলটি। আগামী মাসে তারা খেলবে ব্রাজিলিয়ান কাপের ফাইনালে, প্রতিপক্ষ গ্রেমিও।

 

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »