Ultimate magazine theme for WordPress.

নির্বাচিত প্রতিনিধিদের হত্যা করতে চেয়েছিলেন ট্রাম্প সমর্থকরা

0

©ক্রাইম টিভি বাংলা অনলাইন ডেস্ক ♦

ট্রাম্প সমর্থকরা ক্যাপিটল হিল জবরদখলের দিন নির্বাচিত প্রতিনিধিদের অপহরণ ও হত্যা করতে চেয়েছিলেন বলে আদালতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রসিকিউটরদের দাখিলকৃত নথিতে দাবি করা হয়েছে। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার বিচার বিভাগের আইনজীবীরা আদালতে ওই সব তথ্য জমা দেন। নথিতে প্রসিকিউটররা লিখেছেন, ক্যাপিটলে চ্যান্সলির নিজের কথা এবং কাজ অকাট্যভাবে প্রমাণ করে যে দাঙ্গাকারীদের লক্ষ্য ছিল আইন-প্রণেতাদের অপহরণের পর হত্যা করা। এফবিআইয়ের তদন্ত উদ্ধৃত করে অ্যারিজোনার বিভাগীয় আইনজীবীরা লিখেছেন, চ্যান্সলি ভাইস প্রেসিডেন্ট পেন্সের জন্য একটি নোট লেখেন যেখানে লেখা ছিল, ‘এটা সময়ের ব্যাপার মাত্র, ন্যায়বিচার আসছে।’

তবে এ বিষয়ে তাৎক্ষণিক চ্যান্সলির আইনজীবীর বক্তব্য পাওয়া যায়নি। যুক্তরাষ্ট্রের সময় শুক্রবার চ্যান্সলিকে ফেডারেল আদালতে তোলার কথা।

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটল হিল ভবনে অনুপ্রবেশ ও সহিংসতার ঘটনায় শিংযুক্ত উইগ এবং বুকে ট্যাটু আঁকা অদ্ভুতদর্শন ব্যক্তি ছিলেন জ্যাকব অ্যান্টনি চ্যান্সলি। তিনি ‘জ্যাক অ্যাঞ্জেলি’ নামে বেশি পরিচিত। তিনি নিজেকে কট্টর ডানপন্থি ‘কিউঅ্যানন’ গ্রুপের একজন ‘ডিজিটাল সৈনিক’ বলে দাবি করেন। ষড়যন্ত্র তত্ত্বে বিশ্বাসী এই গ্রুপটি মনে করে, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প শয়তান-উপাসক পেডোফিল (শিশুধর্ষক) এক বৈশ্বিক উদারপন্থি সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে গোপন যুদ্ধ পরিচালনা করছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রসিকিউটদের মন্তব্য এমন এক সময়ে এল যখন তারা এবং ফেডারেল প্রতিনিধিরা ক্যাপিটলে সংঘটিত সহিংসতার বিষয়ে আরও গুরুতর অভিযোগ আনছেন। এর মধ্যে রবার্ট স্টানফোর্ড নামে ফায়ার সার্ভিসের অবসরপ্রাপ্ত একজন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে, যিনি একজন পুলিশ অফিসারের মাথায় অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র নিক্ষেপ করেন। এ ছাড়া পিটার স্টজার নামে এক ব্যক্তি কয়েকজন অফিসারকে আমেরিকান পতাকা দণ্ড দিয়ে মারধর করেন।

চ্যান্সলির মামলায় প্রসিকিউটররা যেসব অভিযোগ এনেছেন তার মধ্যে রয়েছে বিদ্রোহে সক্রিয় অংশগ্রহণ। এর মাধ্যমে হামলাকারীরা যুক্তরাষ্ট্রের সরকারকে সহিংসভাবে পরিবর্তন করতে চেয়েছিল। এ ছাড়া প্রসিকিউটররা নতুন করে বিদ্রোহ দানা বাঁধছে বলেও সতর্ক করেন।

সূত্র: ঢাকাটাইমস

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »