Ultimate magazine theme for WordPress.

‘কুমারীত্ব পরীক্ষা’ বাতিল করল পাকিস্তানি আদালত

0

©ক্রাইম টিভি বাংলা অনলাইন ডেস্ক ♦

কুমারীত্ব পরীক্ষায় টু ফিঙ্গার টেস্টের বিরুদ্ধে রায় দিল পাকিস্তানের একটি আদালত। সোমবার (৪ডিসেম্বর) পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের প্রাদেশিক আদালত কুমারীত্ব পরীক্ষা বন্ধের রায় দিয়েছে। এই প্রথম পাকিস্তানের কোনো আদালত এমন যুগান্তকারী রায় দিল।

বেশ কিছু মানবাধিকার সংগঠন দীর্ঘ দিন ধরে এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করছিল। তারই জেরে পাঞ্জাবে একটি আদালতে মামলা করা হয়েছিল। সেই মামলার রায়েই আদালত টু ফিঙ্গার টেস্ট বন্ধের রায় দিয়েছে। মানবাধিকার কর্মীদের আশা দ্রুত পুরো দেশে এই আইন বলবৎ হবে।

টু ফিঙ্গার টেস্ট মূলত বহু পুরাতন প্রচলিত পরীক্ষা। যেখানে, মেডিকেল অফিসার ধর্ষণের শিকার নারীর যৌনাঙ্গে দুইটি আঙুল প্রবেশ করিয়ে কুমারীত্ব পরীক্ষা করে থাকেন। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) বহুদিন আগেই জানিয়েছে, এই পরীক্ষা কোনো কাজের নয়। বরং, এ ধরনের পরীক্ষার মাধ্যমে নারীদের অপমানই করা হয়।

পাকিস্তানে ধর্ষিত নারীদের বহু সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। রক্ষণশীল সমাজ ধর্ষিতা নারীদের নানাভাবে অপমান করে। প্রকাশ্যে তাদের কুমারীত্ব নিয়ে প্রশ্ন তোলা হয়। বস্তুত সে কারণেই এত দিন পর্যন্ত টু ফিঙ্গার টেস্টের প্রচলন ছিল বলে মানবাধিকার কর্মীদের বক্তব্য। আদালতের রায় সমাজকে এক নতুন পথ দেখাবে বলে তাদের আশা।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »