Ultimate magazine theme for WordPress.

আর্জেন্টিনায় গর্ভপাতকে বৈধতা দিয়ে বিল পাস।

0

©ক্রাইম টিভি বাংলা অনলাইন ডেস্ক ♦

আর্জেন্টিনায় গর্ভপাতকে বৈধতা দেওয়া নিয়ে আনা একটি বিল পাস করেছে দেশটির পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ। দেশটিতে নারীর অধিকার নিয়ে কাজ করা বিভিন্ন সংগঠন দীর্ঘদিন ধরে গর্ভপাতকে বৈধতা দেওয়ার দাবি জানিয়ে আসছিল। বিবিসির এক খবরে এ তথ্য জানানো হয়।

পার্লামেন্টে অনুষ্ঠিত এক ভোটাভুটিতে ওই বিলের পক্ষে ভোট দেন ১৩১ জন আইনপ্রণেতা। বিপক্ষে ভোট দেন ১১৭ জন।

আইনে পরিণত হতে হলে বিলটিকে অবশ্যই পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ সিনেটে পাস হতে হবে। এ বছরের মধ্যেই সিনেটে এ ভোট অনুষ্ঠিত হবে বলে মনে করা হচ্ছে। আর্জেন্টিনায় গর্ভপাত ঘটালে অনেক নারী মামলার মুখোমুখি হয়ে থাকেন।

প্রেসিডেন্ট আলবার্তো ফার্নান্দেজ এই বিলের প্রস্তাব দেন। বিলটি আইনে পরিণত হলে গর্ভধারণের ১৪ সপ্তাহের মধ্যে গর্ভপাত ঘটানোর অধিকার পাবেন স্থানীয় নারীরা। বর্তমানে দেশটিতে শুধু ধর্ষণের শিকার হওয়ার ক্ষেত্রে বা মাতৃত্বজনিত কারণে নারীর স্বাস্থ্যঝুঁকি থাকলে গর্ভপাত ঘটানোর অনুমতি রয়েছে।

বিলের ওপর পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষে গত বৃহস্পতিবার থেকে গত শুক্রবার সকাল পর্যন্ত ২০ ঘণ্টার বিতর্কে অংশ নেন আইনপ্রণেতারা। পরে বিলটির ওপর ভোটাভুটি হয়। সিনেটের ভোটে বিলের পক্ষে–বিপক্ষে জোর লড়াই হতে পারে। এর আগে ২০১৮ সালে গর্ভপাতকে বৈধতা দিয়ে আনা একই রকম একটি বিল নিম্নকক্ষে পাস হলেও সিনেট তা প্রত্যাখ্যান করে।

প্রেসিডেন্ট ফার্নান্দেজ বলেন, ‘আমি একজন ক্যাথলিক। কিন্তু আমাকে সবার জন্য আইন করতে হবে।’ বৃহস্পতিবার তিনি আরও বলেন, এটি জনস্বাস্থ্য সংশ্লিষ্ট গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু। একই দিন রোমান ক্যাথলিক চার্চ আবারও গর্ভপাতের বিরোধিতা করেছে। তবে দেশটির নারী, জেন্ডারবিষয়ক মন্ত্রী এলিজাবেথ গোমেজ অ্যালকোর্টা বলেন, ‘আমরা আমাদের ইতিহাসে এক নতুন অধ্যায় রচনা করেছি।’

বিলটির ওপর ভোটাভুটি সামনে রেখে এর পক্ষে–বিপক্ষের বিভিন্ন সংগঠন এবং গোষ্ঠীর কর্মীরা রাজধানী বুয়েনস এইরেসে কংগ্রেস ভবনের বাইরে সমবেত হন।
সরকারি পরিসংখ্যান অনুযায়ী, আর্জেন্টিনায় প্রতিবছর গোপনে গর্ভপাত ঘটাতে গিয়ে সৃষ্ট জটিলতায় প্রায় ৩৮ হাজার নারীকে হাসপাতালের শরণাপন্ন হতে হয়।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »