Ultimate magazine theme for WordPress.

এই ১১ টি লক্ষণ থাকলে কন্যাসন্তান হবে আপনার

0

©ক্রাইম টিভি বাংলা অনলাইন ডেস্ক♦

এই ১১টি লক্ষণের সাহায্যে বলা চলে আপনি একটি ফুটফুটে সুন্দরী কন্যা উপহার পেতে চলেছেন৷ প্রাচীন আয়ুর্বেদ শাস্ত্রে, প্রচলিত লোকগাথায়, জ্যোতিষশাস্ত্র বলছে অন্তঃস্তত্ত্বা অবস্থায় এমন অনেক লক্ষণ আছে, যা দেখে আগে থেকে বলা চলে আপনার পুত্রসন্তান হবে না কন্যাসন্তান হবে ৷ লক্ষণশাস্ত্র অনুসারে সেইরকম ১২টি শরীরবৃত্তীয় লক্ষণ তুলে ধরা হল৷

১. সাধারনতঃ অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় সকালবেলা ঘুম থেকে মর্নিং সিকনেস অনুভূত হয় ৷ সকালে বিছানা ছেড়ে ওঠার পর আপনার গর্ভে পুত্রসন্তান থাকলে সেরকম দুর্বলতা অনুভব হয় না, যদি অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় সকালবেলা আপনি খুব বেশী দুর্বলতা অনুভব করেন, তাহলে বুঝতে হবে আপনার গর্ভস্থ সন্তান কন্যা।

২. যদি আপনার গর্ভে কন্যা সন্তান থাকে আপনার চুল হবে দুর্বল, পাতলা এবং উজ্জলতা শূন্য, নিস্প্রভ৷ গর্ভে পুত্রসন্তান থাকলে চুল হয় গ্লসি এবং চকচকে।

৩. আপনি যখন অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় ঘুমান, তখন যদি বেশিরভাগ সময় আপনি ডানদিকে কাত হয়ে শুয়ে থাকেন, তাহলে জানতে হবে আপনি অচিরেই একটি মিষ্টি কন্যাসন্তান পেতে চলেছেন।

৪. অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় মাঝেমধ্যেই যদি খুব বেশি মিষ্টিজাতীয় খাবার যেমন চকলেট, সন্দেশ, আইসক্রিম খেতে ইচ্ছা করে তাহলে আপনি জেনে নিন অল্পদিনের মধ্যে উপহার পেতে চলেছেন একটি ফুটফুটে কন্যা সন্তান। আর নোনতা খাবার, স্ন্যাক্স বা কচুরী ইত্যাদি খাবার প্রবল ইচ্ছা হলে বোঝায় পুত্রসন্তান আসতে চলেছে আপনার কোলে।

৫. অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় থাকার সময়ে আপনার শরীরে ঘন ঘন অন্তঃক্ষরা গ্রন্থির ক্ষরণের পরিবর্তন হয় ৷ আর এই পরিবর্তনের জন্যে আপনার ইউরিনের বা প্রস্রাবের রঙও থেকে থেকে পরিবতন হতে থাকে ৷ যদি বেশীরভাগ সময় আপনার প্রস্রাবের রঙ ফিকে রঙের বা সাদা ধোয়াটে রঙের হয়,তাহলে নিশ্চিত থাকুন আপনি একটি কন্যাশিশুর মা হতে চলেছেন। পুত্রসন্তান হলে প্রস্রবের রঙ হয় উজ্জ্বল হলদেটে।

৬. অন্তঃস্তত্ত্বা থাকাকালীন যতই প্রসবের দিন এগিয়ে আসতে থাকে,ততই আপনার স্তনের সাইজ বাড়তে থাকে৷ প্রাকৃতিক কারণে আপনার শিশুর পুষ্টির জন্যে, এই সময়ে যদি বামদিকের স্তনের সাইজ ডানদিকের স্তনের সাইজের থেকে বড় হয়,তাহলে আপনি নিশ্চিত হতে পারেন আপনি অবশ্যই একটি কন্যাসন্তানের মা হবেন। আর ডানদিকের স্তনের সাইজ বড় হলে আপনি পুত্র সন্তানের মা হবেন।

৭. আপনার তলপেট যদি সামনের দিকে ভারবহন করে তাহলে আপনার ছেলে হবে; আর যদি আপনার পেটটা মাঝের দিকে ভারবহন করে, তাহলে অবশ্যই আপনি কন্যাশিশুর মা হবেন।

৮. একটি গ্লাসে ১ টেবিল চামচ বেকিং পাউডার নেবেন। তারপর ঐ বেকিং পাউডারের গ্লাসে আপনার অন্তঃস্তত্বা থাকাকালীন কিছুটা ইউরিন নিন। এবার কিছুক্ষণ অপেক্ষার পর যদি দেখেন আপনার প্রস্রাবের রঙের কোন পরিবর্তন হয়নি অর্থাৎ বেকিং পাউডার ও ইউরিনের রিয়াকশনের ফলে কোনও রঙের পরিবরতন হয়নি, প্রস্রাবের রঙ যেমন ছিল তেমনই আছে, তাহলে জানবেন একটি কন্যাশিশু আসছে আপনার কোলে। আর যদি বেকিং পাউডারের সঙ্গে প্রস্রাবের বিক্রিয়ায় সাঁ সাঁ শব্দ করে যাকে বলে ফিজি সাউন্ড, তাহলে আপনার সন্তান হবে পুত্র।

৯. সাইকোলজিক্যালি আপনার মনটি অন্তঃসত্ত্বা থাকাকালীন প্রথম থেকে প্রসবের দিন অবধি যদি শৃঙ্খলাপরায়ন ও মাধুর্যপূর্ণ থাকে, তাহলে জেনে নিন আপনি কন্যাসন্তানের মা হতে চলেছেন। আর যদি অন্তঃসত্ত্বা থাকাকালীন আপনার মুড ক্লামজি (clumsy) থাকে, তাহলে সম্ভববত আপনি পুত্রসন্তানের মা হবেন।

১০. অন্তঃসত্ত্বা থাকাকালীন ঘন ঘন হরমোনাল পরিবর্তনের জন্যে আপনার মুখে যদি খুব বেশীমাত্রায় ব্রণ, ফোঁড়া, ব্লিস্টার, স্কিন র‍্যাশ-সহ নানা ধরনের চর্মরোগ উপস্থিত হতে থাকে, তাহলে এটাও একটা লক্ষণ যে আপনি কন্যা সন্তানের মা হতে চলেছেন। কারণ ছেলে এতবেশী মাত্রায় এইসব স্কিন ডিজিজ বেরয় না।

১১. অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় আপনার যদি মনে হয় পেটের শিশুটা একটু উপরে, তাহলে নিশ্চিত থাকুন আপনার এবার কন্যাসন্তান হবে। আর নীচের দিকে মনে হলে পুত্রসন্তান হবে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »