Ultimate magazine theme for WordPress.

পুকুরে মাছ ধরতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার শিশু

0

©ক্রাইম টিভি বাংলা ডেস্ক♦

কুমিল্লায় পুকুরে বড়শী দিয়ে মাছ ধরতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছেন তৃতীয় শ্রেণির এক ছাত্রী। ধর্ষণের ঘটনায় বৃহস্পতিবার শিশুটির বাবা কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানায় ধর্ষক এবং তার দুই সহযোগিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেছেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে রাব্বী ও শরীফ নামে দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে। তবে ধর্ষক নান্নুকে এখনও গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। গতকাল বুধবার কুমিল্লা সদর উপজেলার ৩নম্বর দূর্গাপুর ইউনিয়নের বলরামপুরে এ ঘটনা ঘটে।

ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত আসামি হচ্ছেন কুমিল্লার সদর দক্ষিণ উপজেলার জয়পুর গ্রামের সাইফুল ইসলামের ছেলে নান্নু (১৭), কুমিল্লা সদর উপজেলার বলরামপুর এলাকার মৃত হারুন মিয়ার ছেলে রাব্বী (১৬) এবং সদর দক্ষিণ উপজেলার জয়পুর গ্রামের আব্দুলের ছেলে শরীফ।

মামলার সূত্র জানা যায়, সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার শিশুটি সদর দক্ষিণ উপজেলাধীন জয়পুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী। বুধবার দুপুরে বাড়ি থেকে বড়শী দিয়ে মাছ ধরার জন্য ঘটনাস্থলের পার্শ্ববর্তী পুকুরে মাছ ধরতে যায় শিশুটি। তখন অভিযুক্ত রাব্বী এসে শিশুটিকে ১০টাকার প্রলাভন দেখিয়ে অনৈতিক কাজে বাধ্য করে।

পরবর্তীতে অপর দুই অভিযুক্ত নান্নু ও শরীফ রাব্বীর সহযোগিতায় ঘটনাস্থলে যায়। তখন রাব্বী এবং শরীফের সহায়তায় নান্নু ভুক্তভোগী শিশুটিকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

কুমিল্লা কোতয়ালী থানার ওসি আনোয়ারুল হক বলেন, শিশু ধর্ষণের মামলার রাব্বী ও শরীফ নামে দুই আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শিশুটিকে ডাক্তারী পরীক্ষার পর, জবানবন্দির রেকর্ডের জন্য কুমিল্লা কোর্টে পাঠানো হয়েছে। আসামিদেরকেও আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে। অপর আসামি ধর্ষক নান্নুকে গ্রেপ্তারে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »