Ultimate magazine theme for WordPress.

প্রতিদিন কেন বিটের জুস পান করবেন?

0

©ক্রাইম টিভি বাংলা লাইফস্টাইল ডেস্ক♦ 

খুব ক্লান্ত লাগছে? এক গ্লাস বিটের রস বানিয়ে পান করুন। ঝটপট চাঙা হয়ে যাবেন। শুধু চাঙা করাই না, আরও অনেক অনেক উপকারিতা পাওয়া যাবে এই জুস পান করলে।

জেনে নিন:  
•    আয়রন সমৃদ্ধ হওয়ায় লোহিত রক্ত কণিকার উৎপাদন মাত্রায় বেড়ে যায় বিটের রসে। ফলে অ্যানিমিয়া বা রক্তশুন্যতা দূর হয়
•    বিটে থাকা ফ্ল্যাভোনয়েড কোলেস্টেরল কমায় এবং এইচ ডি এল কোলেস্টেরল (ভালো কোলেস্টেরল) বৃদ্ধি করে
•    বিটের রস পান করলে লিউকোমিয়ার (ক্যান্সারের) মতো রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমে
•    রক্তে উপস্থিত নানা ক্ষতিকর উপাদান এবং টক্সিন শরীরে থেকে বের করে দিয়ে ত্বককে ভেতর থেকে সুন্দর ও স্বাস্থ্যোজ্জ্বল করে তোলে
•    অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকায় নিয়মিত খেলে লিভারের কর্মক্ষমতা বাড়ে
•    হার্ট ভালো রাখে ও হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকিও কমে যায়
•    শরীরে অক্সিজেন ও রক্তের প্রবাহ বেড়ে যায়। ফলে দেহের প্রতিটি অংশ উজ্জীবিত হয়ে ওঠে
•    রক্তে শর্করার মাত্রাকে নিয়ন্ত্রণে রাখার পাশাপাশি ইনসুলিনের ক্ষমতা বাড়াতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে বিট। ফলে স্বাভাবিকভাবেই রক্তে শর্করার মাত্রা ঠিক রাখে ও ডায়াবেটিস থাকে নিয়ন্ত্রণে
•    হজম শক্তি বাড়ায় সঙ্গে বাড়ে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও।
খুব সহজে যেভাবে বিটের জুস তৈরি করবেন-
আপনার লাগবে, বিট টুকরো করা ২ কাপ, পানি ১ কাপ, লেবুর রস ২ টেবিল চামচ, লবণ এক চিমটি, পুদিনা পাতা কয়েকটি, কাঁচা মরিচ কুচি এক চা চামচ।

এবার বিট ও সব উপকরণ একসঙ্গে ব্লেন্ড করে নিন। ছেকে সুন্দর স্বচ্ছ গ্লাসে বরফ কুচি (ইচ্ছা) দিয়ে পান করুন স্বাস্থ্যোকর বিটের জুস।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »