Ultimate magazine theme for WordPress.

ব্রাজিলে বিদেশিদের ব্যাংক একাউন্ট বন্ধ করে দেয়ার কারণ কি ?

0

©ক্রাইম টিভি বাংলা ডেস্ক ♦

ব্রাজিলে অবস্থানরত বিদেশী নাগরিকরা খুব সহজেই ব্যাংক একাউন্ট খুলতে পারেন। অভিবাসী বা পর্যটক সকলের জন্য এই নিয়ম প্রযোজ্য। বর্তমানে ব্রাজিলে কয়েক লক্ষ বিদেশী নাগরিক বসবাস করেন। ব্রাজিলের ব্যাংক গুলো সহজ শর্তে বিভিন্ন মেয়াদে ঋণ দিয়ে থাকে। বিদেশী নাগরিকরা এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে অনেকে ব্যবসা করে থাকেন। কিন্তু সম্প্রতি সময়ে একে একে বেশ কিছু বিদেশী নাগরিক ব্রাজিলের সাও পাওলো শহরের বিভিন্ন ব্যাংক থেকে লক্ষ লক্ষ রিয়েল নিয়ে তা পরিশোধ না করে তারা হারিয়ে যায়। তাদের ব্যাপারে ব্রাজিলের আদালত ঋণ খেলাপির নোটিশ দেয়ার পরও তাদের খুঁজে না পাওয়ায় ব্রাজিল সরকার ধারণা করছে তারা ঋনের টাকা নিয়ে অন্য দেশে হয়তো পালিয়ে গেছে। ২০১২ সাল থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত শুধু সাও পাওলো থেকেই কয়েক মিলিয়ন রিয়েল ঋণ নিয়ে পালিয়ে গেছে ৩০/৩৫ জন। ব্রাজিলের সেন্ট্রাল ব্যাংকের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন প্রতারক ঋণ খেলাপিদের থেকে অর্থ ফেরত পেতে তাদের দেশের সাথে কূটনৈতিক পর্যায়ে আলোচনা চলছে। দেরি হলেও আমরা আশা করছি সুদ সহ আমাদের অর্থ ফেরত পাবো। অন্য দিকে সাও পাওলোতে এই সমস্যার কারণে অনেক বাংলাদেশী ব্যবসায়ীর ব্যাঙ্ক একাউন্ট বন্ধ করে দিচ্ছে ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ। তারা বলছে সন্দেহ হলে ব্যাঙ্ক লেনদেন বন্ধ করতেই পারে।

এই সমস্যায় অনেক বাংলাদেশী ব্যাঙ্ক লেনদেন করতে পারছে না। এদিকে ব্যাংক কর্মকর্তারা বলছেন ভবিষ্যতে লেনদেনের ব্যাপারে তারা সাবধানতা অবলম্বন করবেন।বিদেশি নাগরিকরা এখন থেকে আর বেশি ঋণ পাবে না।জামানত দাতা না পেলে কোন প্রকার নতুন ঋণ দেওয়া হবে না । এই সমস্যার কারণে আসল ব্যবসায়ীরা অনেক বিপদের সম্মুখীন হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »