Ultimate magazine theme for WordPress.

মহামারীকে ‘সাধারণ ফ্লু’ হিসেবে দেখার মূল্য দিচ্ছেন ট্রাম্প

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প জানিয়েছিলেন, তারা দুজনও করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য নমুনা দিয়েছেন এবং কোয়ারেন্টিন শুরু করছেন।

0

©ক্রাইম টিভি বাংলা অনলাইন ডেস্ক♦

কোভিড-১৯ মহামারীকে গুরুত্ব না দেয়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তার স্ত্রী মেলানিয়ারও করোনা শনাক্ত হয়েছে।

 

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ফার্স্টলেডি মেলানিয়া ট্রাম্প করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনায় প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে চীনের সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল টাইমস।
সংবাদমাধ্যমটির এডিটর ইন চিফ এক নিবন্ধে বলেছেন, ট্রাম্প ও ফার্স্টলেডি কোভিড ১৯-কে খাটো করে দেখার মূল্য দিচ্ছেন। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান এ খবর জানিয়েছে।

বৃহস্পতিবার ট্রাম্পের ঘনিষ্ঠ সহযোগী করোনায় আক্রান্ত হলে কোয়ারেন্টিনে যাওয়ার পর পরীক্ষা করা হলে এই দম্পতির দেহে করোনার সংক্রমণ ধরা পড়ে। টুইটারে করোনা পজিটিভ পরীক্ষার ফল জানিয়ে ট্রাম্প বলেছেন, আমরা একসঙ্গে এই পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠব।

চীনের গ্লোবাল টাইমসের এডিটর ইন চিফ হু জিজিন লিখেছেন, কোভিড-১৯ শুরু থেকেই গুরুত্ব দেননি ট্রাম্প। এটিকে সাধারণ ফ্লু হিসেবে বলে আসছিলেন তিনি। মাস্ক ব্যবহারেও তার অনীহা ছিল। যারা মাস্ক পরতেন তাদের নিয়ে হাসিঠাট্টা করতেন ট্রাম্প। করোনাকে খাটো করে দেখার যে জুয়া ট্রাম্প খেলেছেন, তার মূল্য দিচ্ছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তার আক্রান্ত হওয়ার খবর প্রমাণ করে যুক্তরাষ্ট্রে মহামারীর পরিস্থিতি কতটা গুরুতর।

তিনি আরও লিখেছেন, ফলে ট্রাম্প ও যুক্তরাষ্ট্রের ভাবমূর্তিতে নেতিবাচক প্রভাব পড়বে। হয়তো তার পুনরায় নির্বাচনেও নেতিবাচক প্রভাব দেখা দিতে পারে।

ঘনিষ্ঠ উপদেষ্টা হোপ হিকসের সংক্রমণ ধরা পড়ার পর করোনাভাইরাস পরীক্ষা করাতে দিয়েছিলেন ট্রাম্প ও মেলানিয়া।

বৃহস্পতিবার এক টুইটে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প জানিয়েছিলেন, তারা দুজনও করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য নমুনা দিয়েছেন এবং কোয়ারেন্টিন শুরু করছেন। পরে সেই পরীক্ষার ফল ‘পজিটিভ’ আসার খবর দেন ট্রাম্প।

করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে বয়স্কদের ঝুঁকিই সবচেয়ে বেশি। ৭৪ বছর বয়সী ট্রাম্প সেই বয়স শ্রেণিতেই পড়েছেন। আর মেলানিয়ার বয়স ৫০ বছর।

৩১ বছর বয়সী হোপ হিকস এ সপ্তাহের শুরুতে ট্রাম্পের সঙ্গে ‘এয়ারফোর্স ওয়ান’-এ ভ্রমণ করেছিলেন। একটি টেলিভিশন বিতর্কে অংশ নিতে ট্রাম্প ওহাইওতে গিয়েছিলেন। এতে তিনি মাস্ক পরেননি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »