Ultimate magazine theme for WordPress.

ধর্ষক ছাত্রলীগ কর্মী এম. সাইফুর রহমানের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে আরো একটি মামলা হয়েছে।

0

©ক্রাইম টিভি বাংলা ডেস্ক ∴

ছাত্রাবাসে তুলে নিয়ে স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে গণধর্ষণের মামলার আসামি ছাত্রলীগ কর্মী এম. সাইফুর রহমানের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে আরো একটি মামলা হয়েছে। শনিবার সকালে এই মামলা করেছে পুলিশ। এর আগে শুক্রবার রাত ২টার দিকে সিলেটের এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে তল্লাশি চালিয়ে সাইফুরের রুম থেকে একটি আগ্নেয়াস্ত্রসহ দেশীয় ও ধারালো অস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ।

এই সময়ে কলেজ ও ছাত্রাবাস বন্ধ থাকলেও সাইফুর রহমানসহ ছাত্রলীগের কয়েকজন ছাত্রাবাসে বসবাস করছিল। ছাত্রাবাসে অবস্থান করে কলেজ ক্যাম্পাস, টিলাগড় ও বালুচর এলাকায় তারা নিয়মিত ছিনতাই ও অপহরণ করতো বলে অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া রাতে ছাত্রাবাসে জুয়া ও মাদকের আসরও বসাতো বলে সূত্র জানায়।

শুক্রবার সন্ধ্যায় এক নববধূ তার স্বামীকে নিয়ে এমসি কলেজ ক্যাম্পাসে বেড়াতে যান। এসময় ছাত্রলীগ কর্মী সাইফুর রহমান ও শাহ মাহবুবুর রহমান রনির নেতৃত্বে স্বামী ও স্ত্রীকে পার্শ্ববর্তী কলেজ ছাত্রাবাসে তুলে নিয়ে যায় আসামিরা। পরে স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে ধর্ষণ করে তারা। রাত ১০টায় খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ধর্ষিতা ও তার স্বামীকে উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় সিলেট শাহপরাণ থানায় ধর্ষিতার স্বামী বাদী হয়ে মামলা করেন।

মামলার আসামিরা হলেন- এম. সাইফুর রহমান, শাহ মাহবুবুর রহমান রনি, তারেক আহমদ, অর্জুন লঙ্কর, রবিউল ইসলাম ও মাহফুজুর রহমান। এরা সবাই ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত।

ঘটনার পর রাতভর অভিযান চালালেও মামলার কোন আসামিকে এখনো আটক করতে পারেনি পুলিশ।

ইন্সপেক্টর ইন্দ্রানীল ভট্টাচার্য জানান, তারা আসামিদের ধরতে মাঠে কাজ করছেন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »