Ultimate magazine theme for WordPress.

ব্রাজিলের রাজধানী ব্রাজিলিয়ায় বাংলাদেশী কমিউনিটি করতে চায় প্রবাসী বাংলাদেশীরা ।

0

ব্রাজিলিয়া থেকে প্রতিনিধি আইনুল হক / ক্রাইম টিভি বাংলা 

ব্রাজিল দক্ষিণ আমেরিকার সবচেয়ে বড় দেশ। এই দেশটি আয়তনে পৃথিবীতে পঞ্চম এবং জনসংখ্যার দিক দিয়েও পাঁচ নম্বরে আছে ব্রাজিল। ব্রাজিল  নামটি এসেছে একটি গাছের নাম ব্রাজিলউড থেকে।  বিশাল অরণ্যে ঘেরা এই দেশটির আয়তন প্রায় ৮৫ লক্ষ বর্গকিলোমিটার। দক্ষিণ আমেরিকার  ৪৭% জায়গা জুড়ে ব্রাজিলের অবস্থান।  ইকুয়েডর এবং চিলি ছাড়া দক্ষিণ আমেরিকার বাকি সবগুলি দেশের সাথে ব্রাজিলের সীমান্ত আছে। বিশ্বের সবচেয়ে ক্যাথলিক এর বসবাস এই ব্রাজিলে। ব্রাজিলের মোট জনসংখ্যার ৬৫ ভাগ ই ক্যাথলিক। বর্তমানে ব্রাজিলে ২২ লক্ষ মুসলিম বসবাস করে ।    পর্যটক দের জন্য ব্রাজিল এক আকর্ষণীয় জায়গা। তাই প্রতি বছর প্রায় ৬ মিলিয়ন পর্যটক ব্রাজিলে ঘুরতে আসেন এই দেশে । ব্রাজিলের রাজধানীর নাম ব্রাজিলিয়া। মজার বিষয় হলো আজ থেকে প্রায় ৬০ বছর আগে মাত্র ৪১ মাসে এই রাজধানী নির্মাণ করা হয়েছে। ব্রাজিলিয়া শহরটি পৃথিবীর অন্যতম একটি সুন্দর শহর। এই শহর টি আকাশ থেকে দেখলে মনে হয় একটি পাখির মতো। বিশ্ব ঐতিহ্য ছড়াছড়ি ব্রাজিলে। সপ্তম  আশ্চর্যের একটি christ the redeemer এই ব্রাজিলে অবস্থিত।

ব্রাজিলের রাজধানীর নাম ব্রাজিলিয়া

ব্রাজিলে প্রচুর বিদেশী নাগরিক বসবাস করেন । প্রতিটি দেশের ভিন্ন ভিন্ন কমিউনিটি রয়েছে এ দেশে । বর্তমানে বাংলাদেশ ও ব্রাজিলের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক রয়েছে । রাজধানী ব্রাজিলিয়ায় বাংলাদেশ হাই কমিশন অবস্থিত । আর ঢাকার গুলশানে অবস্থিত ব্রাজিল হাই কমিশন । উল্লেখ্য ব্রাজিলে বর্তমানে অনেক বাংলাদেশীর বসবাস । পরিবার নিয়ে থাকেন অনেকে । বাঙ্গালীদের মধ্যে সব চেয়ে বেশি বসবাস করেন বাণিজ্যিক নগরী সাও পাওলতে । তার পরে রাজধানী ব্রাজিলিয়াতে। পারানা রাজ্যের রাজধানী কুরিচিবাতে থাকেন একটি বাঙালি পরিবার। রিও গ্র্যান্ডে দো সুল থাকেন কিছু বাঙালি।

ব্রাজিলের রাজধানী ব্রাজিলিয়ায় প্রায় ৩০০ জন বাঙালি বসবাস করেন । এদের মধ্যে অনেকেই পরিবার নিয়ে থাকেন । এই সব পরিবার ও প্রবাসী বাঙালিরা দ্রুত ব্রাজিলিয়ায় বাংলাদেশ কমিউনিটি করতে যাচ্ছে ।

নির্বাচনের মাধ্যমে জবাবদিহি ও স্বচ্ছতা রেখে এই কমিটি করা হবে । যে কমিউনিটি বাংলাদেশীদের কল্যাণে কাজ করবে । বাংলাদেশী কমিউনিটি সব সময় বাংলাদেশ হাই কমিশনের সাথে মিলে মিশে বাংলাদেশিদের কল্যাণে কাজ করতে হবে । কোন বাংলাদেশি ব্রাজিলে মারা গেলে তার লাশ পরিবারের কাছে যাতে দ্রুত পাঠানো যায় সেই বেবস্থা করতে হবে । কোন বাংলাদেশি কাজ হারালে তার নতুন কাজের ব্যাপারে সহযোগিতা করতে হবে । যদিও সাও পাওলতে বাঙ্গালিরা নিজ নিজ জেলার কমিউনিটি বানিয়েছে ।  ব্রাজিলিয়া প্রবাসীরা  দ্রুত বাংলাদেশ কমিউনিটি করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে ব্রাজিলের রাজধানী ব্রাজিলিয়ায় । প্রবাসী বাংলাদেশিরা যে কোন ধরণের সহযোগিতা পাবেন এই কমিউনিটির কাছ থেকে। ব্রাজিলের সব প্রদেশের বাঙ্গালীদের ব্রাজিলিয়া প্রবাসী বাঙ্গালীদের সাথে যোগাযোগ করে নতুন এই কমিউনিটি করতে সহযোগিতা করার অনুরুধ করেছেন ব্রাজিলিয়া প্রবাসী বাংলাদেশিরা ।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »