Ultimate magazine theme for WordPress.

পেট্রোল পাম্পে যেভাবে প্রতারণার শিকার গ্রাহকরা

0

©ক্রাইম টিভি বাংলা লাইফস্টাইল ডেস্ক:

যে কোনো মোটরযানের জন্য তেল একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। তাই মোটরযান আরোহীদের নিয়মিত বিভিন্ন ফুয়েল পাম্পে যেতে হয় তেল সংগ্রহ করতে। অনেক সময়ই দুর্মূল্যের এই বাজারে শখের মোটরযানের জন্য কষ্টার্জিত টাকায় কেনা তেল পুরোটা পাচ্ছেন না আপনি। আপনার অজান্তেই আপনার কেনা তেল চুরি করে নিচ্ছে অন্য কেউ।

আসুন জেনে নিই, কীভাবে বুঝবেন পাম্প থেকে আপনার কেনা পেট্রোল কিংবা ডিজেল থেকে চুরি হচ্ছে কিনা।

ফুয়েল পাম্পের রিডিং মিটারের মাধ্যমে প্রতারণা আপনি যখন ফুয়েল পাম্প থেকে ফুয়েল নিতে যান তখন একটু খেয়াল করলে দেখবেন একজন আপনাকে তেল দেওয়ার জন্য আসছে এবং অন্য আরেকজন আপনার কাছ থেকে টাকা সংগ্রহ করতে আসছে। এ সুযোগটাকেই কাজে লাগাচ্ছে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী। আপনি যখন মিটার থেকে নজর সরিয়ে নিয়েছেন ঠিক তখনই পাম্পের মিটার রিসেট না করে আপনাকে পাম্পের কর্মচারী ফুয়েল দেওয়া শুরু করে। ফলে কারচুপির মাধ্যমে আপনার তেলের কিছু অংশ নিয়ে নেয় তারা।

এই প্রতারণার হাত থেকে বাঁচতে আপনি যখন ফুয়েল নিতে পাম্পে যাবেন তখন ফুয়েল নেওয়ার আগে ফুয়েল পাম্পের রিডিং মিটারের দিকে লক্ষ্য রাখবেন। তেল দেওয়ার আগে অবশ্যই মিটারটি রিসেট করে শূন্য করে নিতে বলবেন।

এছাড়া অনেক সময় পাম্পে গিয়ে আপনি ৫০০ টাকার ফুয়েল চাইলেন, কিন্তু পাম্পের লোক আপনাকে ২০০ টাকার ফুয়েল দিয়ে থেমে গেল। সে আবার ২০০ এর পর থেকে ফুয়েল দেওয়া শুরু করে আপনাকে বাকি টাকার ফুয়েল দিলো। আপনি ভাবলেন আপনি পুরো ৫০০ টাকার ফুয়েলই পেয়েছেন। কিন্তু এটাও প্রতারণার একটা উপায়। আপনার সাথে যদি কখনো এমনটা হয়ে থাকে তাহলে এ ক্ষেত্রেও পাম্পের লোককে বলুন মিটার শূন্য করে নতুন করে বাকি ফুয়েল দেওয়া শুরু করতে।

টিউনিংয়ের মাধ্যমে প্রতারণা আমরা সাধারণত পাম্প থেকে ১০০, ২০০, ৫০০, ১০০০ টাকার কিংবা ১ লিটার ২ লিটার এমন পরিমাণ ফুয়েল নেই। এই সুযোগটাকেও কাজে লাগাচ্ছে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী। চাহিদা অনুসারে থাকা এই ডিজিটগুলো টিউনিং করে রাখে তারা। ফলে উল্লেখিত পরিমাণে তেল সংগ্রহ করলে আপনি প্রতারিত হবেন।

এই প্রতারণার হাত থেকে বাঁচতে সবসময় ৫০ কিংবা ১০০ এর গুণিতক নয় এমন পরিমাণ তেল নিন। অর্থাৎ ১২৫ টাকার, ২৫৫ টাকার, ৩৩৫ টাকার এমন পরিমাণে তেল নিন। এছাড়া লিটারের ক্ষেত্রে দশমিক যোগ করে তেল নিন। অর্থাৎ এমন পরিমাণ তেল নিন যা আগে থেকে টিউনিং করে রাখা হয়নি।

বাটন অন অফ করে প্রতারণা পাম্পের যে কর্মচারী আপনার মোটরযানে ফুয়েল দিচ্ছে তার হাতের দিকে লক্ষ রাখুন। লোকটি যদি ফুয়েল দেওয়ার সময় বার বার তার হাতে থাকা বাটনটি অন অফ করে তবে বুঝবেন আপনি প্রতারণার শিকার হচ্ছেন। তাকে বলুন নতুন করে ফুয়েল দিতে। কারণ বার বার অফ অন করায় আপনি আপনার প্রাপ্য ফুয়েল পাচ্ছেন না। তাই ফুয়েল নেওয়ার সময় অবশ্যই লক্ষ্য করবেন পাম্পের লোকটি আপনাকে একবারে ফুয়েল দিচ্ছে কিনা।

ডিজিটাল চিপের মাধ্যমে চুরি অনেক সময় পাম্পে ডিজিটাল চিপের মাধ্যমে চুরি করা হয়। এ চিপটি রিমোট দ্বারা নিয়ন্ত্রিত। পাম্পে একজন লোক থাকে যিনি রিমোট দিয়ে চিপটি নিয়ন্ত্রণ করেন। কোন পাম্প থেকে তেল নেওয়ার পর আপনার যদি মনে হয় মিটারে ঝামেলা আছে তাহলে ১ লিটারের বোতলে তেলটি মেপে দেখুন।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »