Ultimate magazine theme for WordPress.

টেস্ট ইতিহাসের প্রথম দল হিসেবে এমন কীর্তি গড়ল ইংল্যান্ড

0

অভিজ্ঞতা বাজারে কিনতে পাওয়া যায় না। জো রুট আর স্টুয়ার্ট ব্রড সেটা যেন চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিলেন সবাইকে। সন্তানের জন্মের সময় পাশে থাকবেন বলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টে ছুটি নিয়েছিলেন ইংল্যান্ড টেস্ট দলের নিয়মিত অধিনায়ক রুট।

রুটের নেতৃত্ব নিয়ে টুকটাক সমালোচনা ছিল। বেন স্টোকসের মতো মারকুটে একজন অলরাউন্ডারকে দায়িত্ব দিলে ইংল্যান্ড অনেক কিছু করতে পারবে, এমন কথাও ভাবছিলেন অনেকে। সেই স্টোকসই পেলেন রুটের অনুপস্থিতিতে নেতৃত্বের গুরুদায়িত্ব।

আর গুরুদায়িত্ব পেয়েই যেন চমক দেখাতে চাইলেন স্টোকস। দলের পেস আক্রমণের অন্যতম সেরা অস্ত্র স্টুয়ার্ট ব্রডকে একাদশের বাইরে পাঠিয়ে দিলেন। অভিজ্ঞ যুগলকে ছাড়াই মাঠে নেমে গেল ইংল্যান্ড আর প্রথম টেস্টটা হারল।

দ্বিতীয় টেস্টে অধিনায়ক রুট দায়িত্বে ফেরেন, ফেরানো হয় ব্রডকেও। সেই দলটি সহজেই হারিয়ে দিল ওয়েস্ট ইন্ডিজকে, বৃষ্টিতে খেলা ড্র হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হওয়ার পরও। তৃতীয়টিতেও প্রায় একইরকম ঘটনা। বৃষ্টির কবলে পড়েও দাপট দেখিয়ে জিতল ইংল্যান্ড। পিছিয়ে পড়েও ২-১ ব্যবধানে ঘরে তুলল সিরিজের ট্রফি।

পিছিয়ে পড়ে সিরিজে ফেরার ঘটনা একেবারে বিরল নয়। তবে ইংল্যান্ড যে রেকর্ডের সাক্ষী হয়েছে, সেটি টেস্ট ইতিহাসেই করে দেখাতে পারেনি আর কোনো দল। টানা দুটি টেস্ট সিরিজে ১-০তে পিছিয়ে পড়েও জয় তুলে নিয়েছে তারা। যে ঘটনা ঘটল এবারই প্রথম।

এর আগে গত জানুয়ারিতে দক্ষিণ আফ্রিকা মাটিতে সিরিজের প্রথম টেস্টে হেরে শুরু করেছিল ইংল্যান্ড। কিন্তু পরের তিন টেস্টেই দাপটের সঙ্গে জিতে ৩-১ ব্যবধানে সিরিজের ট্রফি হাতে নেয় জো রুটের দল। এবারও একইভাবে পিছিয়ে পড়েছিল ইংলিশরা।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টে ৪ উইকেটে হেরে গিয়েছিল। কিন্তু পরের দুই টেস্টে আগের সিরিজের মতোই দাপুটে চেহারা। ১১৩ আর ২৬৯ রানের বড় দুই জয়ে সিরিজ নিজেদের করে নিয়েছে স্বাগতিকরা। নাম লিখিয়েছে এমন এক রেকর্ডে, যেটি এখন কেবল তাদেরই।

Leave A Reply

Your email address will not be published.

Translate »